শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

নিউজ ডেস্ক

০৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫ ১৯:৫৬

ভারতে বাংলাদেশের চ্যানেল সম্প্রচারে আইনগত বাঁধা নেই- সংসদে তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলের বিষয়ে ভারতীয় দর্শকদের যথেষ্ট আগ্রহ রয়েছে এবং সেখানে বাংলাদেশের চ্যানেল সম্প্রচারের ক্ষেত্রে কোন আইনগত বাধা নেই। সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তিনি আরও জানান- তথ্য মন্ত্রণালয় বেসরকারিখাতে ৪১টি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের অনুমোদন দিয়েছে। তিনি আজ সংসদে সরকারি দলের সদস্য মনোয়ারা বেগমের এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন- বর্তমানে বেসরকারিখাতে ২৩টি এবং সরকারি খাতে ৩টি টেলিভিশন চ্যানেল চালু রয়েছে। নতুন কোন টিভি চ্যানেলের অনুমোদনের বিষয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় এখনো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে প্রকাশিত ৮৮৫টি বাংলা ও ইংরেজি দৈনিক পত্রিকা রয়েছে। এর মধ্যে বাংলা ভাষায় প্রকাশিত দৈনিক পত্রিকা ৮১৯টি এবং ইংরেজি ভাষায় প্রকাশিত দৈনিক ৬৬টি।

সিলেট-৩ আসন থেকে নির্বাচিত সরকারি দলের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে ভারতের ৩২টি পে-চ্যানেল এবং ৮টি ফ্রি-চ্যানেল সম্প্রচারিত হয়।

তিনি জানান- ভারতীয় পে-চ্যানেলসমূহ হচ্ছে- স্টার প্লাস, স্টার মুভিস, স্টার গোল্ড, স্টার ওয়ার্ল্ড, লাইফ ওকে, স্টার ইউটিএসএভি, স্টার জলসা, জি টিভি-এ্যাপেক, জি সিনেমা, জি বাংলা, জি প্রিমিয়ার, জি এ্যাকশন, জি ক্লাসিক, জি নিউজ, জি বিজনেস, ইটিভি বাংলা, সনি টিভি, এসএবি টিভি, সেট ম্যাক্স, এসএবি টিভি, সেট ম্যাক্স, এনইও ক্রিকেট, এনইও স্পোর্টস, স্টার স্পোর্টস, স্টার স্পোর্টস-৩, স্টার স্পোর্টস-৪, বি-৪ ইউ মিউজিক, কালারস, ৯-এক্সএম, টেন স্পোর্টস, টেন এ্যাকশন ও টেন ক্রিকেট এবং ভারতীয় ফ্রি-চ্যানেলসমূহ হচ্ছে- ডিডিনিউজ, ডিডি ন্যাশনাল, ডিডি বাংলা, ডিডি স্পোর্টস, তারা নিউজজেড, তারা মিউজিক, জুম ও জি স্মাইল।

 

 

 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত