সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

২৮ মার্চ, ২০১৯ ১২:১৪

কূটনীতিকদের সম্মানে স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসের অভ্যর্থনা

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিশিষ্ট ব্যক্তি ও বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সম্মানে অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে স্পেনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস।

বুধবার (২৭ মার্চ) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টায় মাদ্রিদের হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল এর হল রুমে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়।

দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার ও তার স্ত্রী রুমাইসা সামাদ দূতাবাসের পক্ষে এ অভ্যর্থনার আয়োজন করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি  ছিলেন স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উত্তর আমেরিকা, পূর্ব ইউরোপ, এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চল বিষয়ক মহাপরিচালক রাষ্ট্রদূত আনা মারিয়া সালোমন পেরেজ।

দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর মোহাম্মদ নাভিদ শফিউল্লাহর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত অভ্যর্থনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ৭১ এর স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহতদের স্মরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পরে বাংলাদেশ ও স্পেনের জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়।

রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার স্প্যানিশ ভাষায় বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের তাৎপর্য সবার সামনে তুলে ধরেন। তিনি তার বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক অগ্রগতির প্রসঙ্গ টেনে রাষ্ট্রদূত বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ একটি সুখী, সমৃদ্ধশালী, আধুনিক ও অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে বদ্ধপরিকর। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১ ও বদ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০ সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন।

স্পেনের বিনিয়োগকারীদের প্রতি বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার। বিশ্বে বাংলাদেশের চতুর্থ বৃহৎ রপ্তানি বাজার হিসাবে স্পেনের গুরুত্বও তুলে ধরেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উত্তর আমেরিকা, পূর্ব ইউরোপ, এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চল বিষয়ক মহাপরিচালক রাষ্ট্রদূত আনা মারিয়া সালোমন পেরেজ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পেনে বসবাসরত সকল বাংলাদেশিকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানান।

তিনি বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করেন এবং স্পেন ও বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক সুদৃঢ় রয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, চীন, জাপান, কোরিয়া, মিশর, সাইপ্রাসসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত এবং স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দূতাবাসের দূতালয় প্রধান মিনিস্টার হারুণ আল রাশিদ, কমার্শিয়াল কাউন্সিলর মোহাম্মদ নাভিদ শফিউল্লাহ, প্রথম সচিব (শ্রম) মো. শরিফুল ইসলাম, বার্সেলোনায় নিযুক্ত অনারারি কাউন্সিলর রামন পেদ্র বারনাউসসহ দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ এবং মাদ্রিদের বাংলাদেশি আঞ্চলিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন।

অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের বাংলাদেশি ও স্প্যানিশ খাবার দ্বারা আপ্যায়ন করা হয়। এ সময় প্রোজেক্টরের মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পটভূমি, উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড এবং বাংলাদেশের দর্শনীয় স্থানগুলো প্রদর্শন করা হয়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত