মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

২১ মে, ২০১৯ ১৪:০৬

নিউইয়র্কে এশিয়ান হেরিটেজ সেলিব্রেশন

এশিয়ান-আমেরিকানদের অধিকার সুসংহত করার প্রত্যয়ের মধ্য দিয়ে নিউইয়র্কে এশিয়ান-আমেরিকানরা উদযাপন করেছে এশিয়ান ঐতিহ্য।

১০ মে ম্যানহাটনের লোকাল ইউনিয়ন হলে ডিসি ৩৭ এশিয়ান হেরিটেজ কমিটি বর্ণাঢ্য আয়োজন আর উৎসবমুখর পরিবেশে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এশিয়ান হেরিটেজ সেলিব্রেশন শিরোনামের এ আয়োজনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এশিয়ান হেরিটেজ কমিটির চেয়ার, ডিসি ৩৭ এর ট্রেজারার এবং লোকাল ১৪০৭ এর প্রেসিডেন্ট এবং অ্যাসালের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট লেবার লিডার মাফ মিসবাহ উদ্দিন।

সূচনা বক্তব্য রাখেন এশিয়ান হেরিটেজ কমিটির কো-চেয়ার চুচাই উইয়েন।

অনুষ্ঠানে কি-নোট স্পিকার ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া স্টেট সিনেটে প্রথম মুসলিম ও একমাত্র বাংলাদেশি-আমেরিকান নির্বাচিত সিনেটর, ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য এবং অ্যাসালর আজীবন সদস্য শেখ রহমান।

অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রে ইমিগ্র্যান্ট কমিউনিটির অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠাসহ নানা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য বিভিন্ন গুণীজনকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মাননা তুলে দেন এশিয়ান হেরিটেজ কমিটির চেয়ার মাফ মিসবাহ উদ্দিন। এ সময় কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এওয়ার্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জর্জিয়ার স্টেট সিনেটর শেখ রহমান, ডিপার্টমেন্ট অব ফাইনান্সের চিফ ইনফরমেশন সিকিউরিটি অফিসার ড. সাদিয়া ইসমত, নিউইয়র্ক সিটির সিভিল কোর্ট জাজ ওয়েন্ডি লী এবং নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্টের ৫ প্রিসেনক্ট’র ডিটেক্টিভ ভিনসেন্ট চিউং।

অনুষ্ঠানে মাফ মিসবাহ বলেন, আগামী ২০২০ সালের অনুষ্ঠিতব্য প্রেসিডেন্টশিয়াল নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নিজেদের অধিকার আদায়ে সকলকে আরো বেশী সক্রিয় হতে হবে। ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমক্র্যাট প্রার্থীকে বিপুল বিজয়ের জন্য এখন থেকে কাজ করে যেতে হবে। আমেরিকার মূলধারার রাজনীতিতে এশিয়ান কমিউনিটির অবস্থানকে আরও সুসংহত করতে জোরালো ভূমিকা অব্যাহত রাখবে।

তিনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সকলের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান।

বক্তারা বলেন, আগামী ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমক্র্যাট প্রার্থীকে বিজয়ী করার মাধ্যমে ইমিগ্যান্টদের অধিকার সুসংহত করতে হবে। আমেরিকার মূল্যবোধ সমুন্নত রাখা, ইমিগ্র্যান্ট কমিউনিটির অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় মূলধারায় আরো জোরালো ভূমিকা নিতে হবে এশিয়ানদের। কোন মানুষই যাতে বৈষম্যের শিকার না হন সে বিষয়েও সোচ্চার হতে হবে সকলকে।

তারা বলেন, এশিয়ানরা যাতে মার্কিন সংবিধান প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে সক্ষম হন সে লক্ষে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাতে হবে। সিটিজেনশিপ নেয়া সকলকে ভোটার হতে হবে।

অনুষ্ঠানে ডা. স্মিতা গুহসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের শিল্পীদের মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশনা সবাইকে মুগ্ধ করে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত