শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৪ আগস্ট, ২০১৯ ১৩:০০

ফোবানা সম্মেলন: ওয়াশিংটনে টাউন হল সভা

আগামী লেবার ডে উইকেন্ডে নিউ ইয়র্কের লং আইল্যান্ড শহরের নাসাউ কলসিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ৩৩তম ফোবানা সম্মেলনকে সফল ও সার্থক করার লক্ষ্যে ফোবানা টাউন হল সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৩ আগস্ট) ওয়াশিংটনে এ সভার আয়োজন করা হয়।

৩০, ৩১ আগস্ট ও ১ সেপ্টেম্বর এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটির আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই টাউন হল সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশে এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনক (বাই) এর প্রাক্তন সভাপতি ও ফোবানার প্রাক্তন ট্রেজারার বৃহত্তর ওয়াশিংটনের বিশিষ্ট সংগঠক ইনারা ইসলাম এবং সভা পরিচালনা করেন সিনিয়র সাংবাদিক ও লেখক শিব্বির আহমেদ।

সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফোবানার চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফোবানার প্রাক্তন চেয়ারম্যান ও বর্তমান কমিটির আউটস্ট্যান্ডিং মেম্বার আতিকুর রহমান আতিক।

সভার মূল মঞ্চে আসন গ্রহণ করেন বাংলাদেশে এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনক (বাই) এর সহসভাপতি সালেহ আহমেদ, একাত্তর ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান পারভিন পাটোয়ারী, ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলি ডিএমভি সভাপতি আকতার হোসেন, ওরা এগারোজন সভাপতি আবদুস সাত্তার, সুরবিতানের সভাপতি বুলবুল ইসলাম, বর্ণমালার সেলিম আক্তার, আমরা বাঙালি ফাউন্ডেশন সাধারণ সম্পাদক জি আই রাসেল, আমেরিকা বাংলাদেশ বিজনেস এসোসিয়েশন সভাপতি সাদেক এম খান, জ্ঞানবাহনের ড. বদরুল হুদা খান, বন্ধন এসোসিয়েশনের জামাল হোসেন, বাইটপোর শামছুজ্জামান খান, আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটির জি আই রাসেল প্রমুখ।

সভায় উপস্থিত ও বক্তব্য রাখেন মুনির হোসেন, ফজলু হক, কবির পাটোয়ারি, ফাহমিদা হোসেন শম্পা, মামুন খান, রফিকুল ইসলাম, এম ডি সালাউদ্দীন, রাজু আহমেদ, মজনু মিয়া, মাসুমা মেরিন, জেবা বাণু, তফাজ্জল হোসেন, মোশারফ চৌধুরী, মজিবুর রহমান খান, উজ্জল বড়ুয়া, হারুনুর রশীদ, হাবিবুর রহমান, মোহাম্মদ খোকন, সোহরাব হোসেন পলাশ, মোহাম্মদ আলমীর, ড. সীমা খান, ড. ফায়জুল ইসলাম, আলাউদ্দীন আহমেদ, আতিফ রাসেল, মোহাম্মদ মোবাস্বের, আবদুল করিম প্রমুখ।

সভায় বক্তারা জানান, ৩৩তম ফোবানাকে সফল ও সার্থক করবার জন্য ওয়াশিংটন থেকে প্রায় ষাট হাজার ডলারের মত সহযোগিতা প্রদান করা হয়। তাছাড়া ওয়াশিংটন থেকে তিনজন ফোবানা আইকন কবির পাটোয়ারী, পারভিন পাটোয়ারী ও জি আই রাসেলকে পরিচয় করিয়ে দেয়া।

নেতৃবৃন্দ জানান, ওয়াশিংটন থেকে এবার সর্বোচ্চ ১৫টি সংগঠন রেজিস্ট্রেশন করেছে যা ভবিষ্যতে ফোবানাকে ওয়াশিংটনের মাটিতে আরও ছড়িয়ে দিতে সহযোগিতা করবে।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে ওয়াশিংটনে ফোবানার ৩৫তম সম্মেলন আয়োজন করবার লক্ষ্যে প্রার্থিতা ঘোষণা করেছে আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি এবং প্রার্থিতার পক্ষে ওয়াশিংটনের প্রায় ১৫টি সংগঠন আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটিকে সমর্থন দিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে চলেছে। ফোবানার টাউন হল সভায় এই ১৫ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জি আই রাসেলের নেতৃত্বে আগামী ২০২১ সালে ফোবানা সম্মেলন আয়োজন করার জন্য সকলের সহযোগিতা ও ভোট প্রার্থনা করেছেন।

একটি সংগঠনের ব্যানারে এতোগুলো সংগঠনের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ভূমিকায় মুগ্ধ হয়ে সভার বিশেষ অতিথি ফোবানার প্রাক্তন চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান ২০২১ সালে ওয়াশিংটনে ফোবানা সম্মেলনের জন্য আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটির পক্ষে তার সমর্থন ঘোষণা করেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী ফোবানাকে সফল ও সার্থক করবার জন্য ওয়াশিংটনের সমর্থন ও সহযোগিতা কামনা করেন।

তিনি বলেন, আপনাদের কথা শুনেছি। ফোবানাকে সফল ও সার্থক করবার জন্য আপনাদের অবদান ফোবানা স্মরণ রাখবে। ওয়াশিংটনের মাটিতে এই ফোবানার জন্ম হয়েছে এবং যার মাধ্যমে এই ফোবানার রেজিস্ট্রেশন ও ট্রেডমার্ক করা সম্ভব হয়েছিল ফোবানার সেই নেত্রী ইনারা ইসলাম আজ এই ফোবানা টাউন হল সভার সভাপতিত্ব করছেন যা আমার জন্য বড় পাওয়া।

তিনি বলেন, ফোবানা একটি নির্দিষ্ট নিয়ম ও আইনকানুনের মধ্য দিয়ে পরিচালিত হয়। ২০২১ সালে ফোবানা সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হবে তা ৩৩তম সম্মেলনের সাধারণ সভায় নির্ধারিত হবে। তবে আজকের এই সভায় ওয়াশিংটনের এতগুলো সংগঠনের নেতৃবৃন্দ আমার দুপাশে বসে আছেন এটা দেখে আমি অত্যন্ত মুগ্ধ। গত কয়েকদিন যে তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছিল আজ আপনাদেরকে দেখে আমি আমার সেই তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা ভুলে গিয়েছি।

তিনি বলেন, আপনারাই ফোবানার ভবিষ্যৎ। এই ফোবানা ওয়াশিংটনের মাটিতে তৈরি হয়েছে। একদিন আপনারাই আবার ফোবানার নেতৃত্ব দিবেন এটা আমি বিশ্বাস করি। ৩৩তম ফোবানায় এতগুলো সংগঠন রেজিস্ট্রেশন করেছে, তিনজন আইকন পেয়েছে, দশ থেকে বারোটি সিলভার প্যাকেজসহ অন্যান্য আর্থিক সহযোগিতা পেয়েছে যা সম্মেলনকে সফল হতে সহায়তা করবে।

বক্তব্য শেষে ফোবানা চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী এবং প্রাক্তন চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান ফোবানা নিয়ে উপস্থিত সুধীজনের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। পরে অনুষ্ঠানের সভাপতি ইনারা ইসলামের সমাপনী বক্তব্যের পর রাতের খাবারের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত