বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ ইং

হাসান মোরশেদ

১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৪১

প্রগতিশীল বাংলাদেশের রূপরেখা আসলে কেমন?

মধুরেন সমাপয়েৎ বলে কিছু নেই আসলে। সমাজে দ্বন্ধ থাকবেই, পরস্পর বিপরীত পক্ষ থাকবে, প্রত্যেক পক্ষ চাইবে তার নিজের অবস্থানকে শক্তিশালী করতে। যতোক্ষন সেটা 'অপরপক্ষ'কে নির্মূল করার বাসনা বা প্রচেষ্টা না হচ্ছে ততোক্ষন এটা গ্রহণযোগ্য। যারা অপরকে গায়ের জোরে 'নির্মূল' করতে চাইবে তারা শেষ পর্যন্ত অপরাধী বলে চিহ্নিত হবে।

প্রগতিশীলতা ও সংরক্ষনশীলতার দ্বন্ধ কখনোই বন্ধ হবে না। একে অপরকে 'নির্মূল' করে ফেলার চেষ্টা না করা পর্যন্ত এটা সবাইকে মেনে নিতে হবে। কিন্তু মাঝখানে একটা ফাইন লাইন থাকতে হবে।

বৈশাখী আয়োজন বা মঙ্গল শোভাযাত্রা মানেই যেমন প্রগতিশীলতা নয়, তেমনি এটাকে গায়ের জোরে বন্ধ করে দেয়া বা এর বিরুদ্ধে তর্জন গর্জন ও সংরক্ষনশীলতা নয়। এটা বড়জোর গাজোয়ারী- গুন্ডামী হতে পারে।

বাংলাদেশী সমাজের প্রেক্ষিতে প্রগতিশীলদের আমার কাছে হ্রস্বদৃষ্টির মনে হয়। নানা আনুষ্ঠানিকতা ও অনুসঙ্গকে এরা অধিক গুরুত্ব দেন মুল দর্শন ও ভিশনের চেয়ে। প্রগতিশীল বাংলাদেশের রূপরেখা আসলে কেমনে? এই প্রশ্নের কোন সঠিক উত্তর পাওয়া যাবে বলে মনে হয় না। 'অপর'কে তাচ্ছিল্য করার একটা প্রগলভতা আছে এদের, গভীরভাবে ভাবতে পারেন না, নিজের গন্ডীর বাইরে যে বিশাল জগত সেটার দায়িত্ব এরা নেন না। ঢাকার নাট্যমঞ্চ যখন আলো ঝলমল তখন কিশোরগঞ্জের একটা গ্রামে যাত্রা কেনো বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, এর প্রতিকার কী? সেই উত্তর তাদের কাছে মিলবে না। যোগাযোগহীনতার গভীর সমস্যায় ডুবে আছেন এরা। আত্মপ্রেমে টইটুম্বুর এদের মধ্যে আত্মসমালোচনা চর্চা নেই।

আত্মসমালোচনা চর্চা নেই সংরক্ষনশীলদের মধ্যেও। এদের মধ্যে তর্জন গর্জন, গাজোয়ারী ভাবে উৎকট রকম প্রকট। আত্মসমালোচনার ধারে কাছে তো নেইই বরং সবকিছুর জন্য 'অন্য' কাউকে দায়ী করার চর্চাটা বাড়াবাড়ি রকম। বৈশাখী আয়োজন বা মঙ্গল শোভাযাত্রা নিয়ে তাদের যতো মাথাব্যথা তার ছিটেফোঁটা নেই তাদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত শিশু ধর্ষনের অভিযোগ নিয়ে। ধর্ম প্রচারের একটা অর্থনৈতিক ভ্যালু তৈরীর হবার সাথে সাথে, বাজার ধরার প্রতিযোগীতায় এরা নিজেদের ভয়ংকর ভাঁড়ে পরিনত করেছে, এদের মূর্খতা ও ভাঁড়ামী সমাজকে আরো অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে।

প্রগতিশীল ও সংরক্ষনশীল কোন পক্ষেরই আদতে কোন তাত্বিক কাঠামো গড়ে উঠছেনা। ফলে দুপক্ষের সিজনাল দ্বন্ধে যতোটা উত্তেজনা ছড়ায়, কার্যকারীতায় ততোটাই শূন্য থাকে।

হাসান মোরশেদ: লেখক, মুক্তিযুদ্ধ গবেষক।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত