রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯ ইং

‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন বই প্রকাশ হয়নি’

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-১৪ ১৯:২৯:২৮

ফাইল ছবি

সিলেটটুডে ডেস্ক:

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, বইমেলায় এখন পর্যন্ত ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে, এমন কোনো বই প্রকাশিত হয়নি বলে মত দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে গ্রন্থমেলা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে বাংলা একাডেমির সঙ্গে পুলিশের বৈঠকের পর ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন বইয়ের বিরুদ্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে বলে জানানো হয়েছিল। গত ৩০ জানুয়ারি এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, “একটি বইয়ের জন্য যদি বইমেলার উপর আক্রমণ হয়, তাহলে আমরা পুরো স্টল বন্ধ করে দেব। তবে এ নিয়ে আলাদাভাবে কথা বলব আমরা। ব্যক্তিগতভাবে আলাপ করব এ নিয়ে।”

তিনি তখন বলেছিলেন, “ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত হানে এমন বিতর্কিত বই খুঁজে দেখার দায়িত্ব তো আমার নয়। এটা দেখবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে আমি কোনো কথাই বলব না।”

গত বছর গ্রন্থমেলায় ‘ধর্ম অবমাননাকর’ বইয়ের প্রকাশনীর স্টল বন্ধ এবং প্রকাশককে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ, যা নিয়ে তখন ব্যাপক সমালোচনা হয়। বাংলা একাডেমিও পুলিশের ওই পদক্ষেপকে সমর্থন জানিয়েছিল। মেলায় আসা ‘ইসলাম বিতর্ক’ নামের একটি বইয়ে ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত’ হানার উপাদান রয়েছে দাবি করে বাংলা একাডেমির সায় নিয়ে বইটির প্রকাশনা সংস্থা ব-দ্বীপের স্টল বন্ধ করে দেয় পুলিশ।

এবার বইমেলা নীতিমালার ১৩.১৩ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, 'অশ্লীল, রুচিগর্হিত, জাতীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি কটাক্ষমূলক, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয় এমন বা জননিরাপত্তার জন্য বা অন্য যে কোনো কারণে গ্রন্থমেলার পক্ষে ক্ষতিকর কোনো বই বা পত্রিকা বা কোনো দ্রব্য অমর একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রি, প্রচার, প্রদর্শন করা যাবে না।'

নীতিমালায় আরও বলা হয়েছে, 'মেলা পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকাশক সেসব প্রকাশনা তার স্টল থেকে সরিয়ে ফেলতে বাধ্য থাকবেন। এ সিদ্ধান্ত মানতে না চাইলে প্রকাশকদের স্টল বরাদ্দ বাতিল হয়ে যাবে এবং ভবিষ্যতে তিনি এ মেলায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।'

আপনার মন্তব্য