মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ইং

বইমেলার ডায়েরি-১৮

 প্রকাশিত: ২০১৮-০২-১৯ ০২:১৬:২১

রেজা ঘটক:

রবিবার ছিল অমর একুশে বইমেলার অষ্টাদশতম দিন। সাপ্তাহিক ছুটির দিন না হওয়ায় বইমেলায় উপস্থিতি ছিল ঢিমে তালের। রাত আটটার পর বইমেলা প্রায় ফাঁকা হয়ে যায়। তবে রবিবার বইমেলা চত্বরে মূল আলোচনার বিষয় ছিল শিশু একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার। দীর্ঘদিন পর (৬ বছর বিরতি দিয়ে) রবিবার একসাথে ছয় বছরের শিশু একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

৬ বছরে সাতটি শাখায় মোট ৪০ জন এই পুরস্কার লাভ করেন। রবিবার দুপুরে শিশু একাডেমির সভাকক্ষে একাডেমি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই পুরস্কারপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করা হয়। শিশু একাডেমির পরিচালক আনজীর লিটন এই নাম ঘোষণা করেন। এসময় শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান সেলিনা হোসেন, শিশু সাহিত্যিক সুজন বড়ুয়া, অগ্রণী ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক আবুল বাশার সেরনিয়াবাত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শিশু সাহিত্যের কবিতা-ছড়া-গান, গল্প-উপন্যাস-রূপকথা, অনুবাদ-ভ্রমণকাহিনী, জীবনী-প্রবন্ধ, স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তি, নাটক ও বই অলংকরণ এই সাত শাখায় প্রকাশিত সেরা বইকে শিশু সাহিত্য পুরস্কার দেয়া হয়। নানা কারণে এই পুরস্কার কার্যক্রম বিঘ্নিত হওয়ার ফলে এ বছর ১৪১৮ থেকে ১৪২৩ বঙ্গাব্দ পর্যন্ত মোট ছয় বছরের সেরা ৪০ লেখক ও শিল্পীকে এই পুরস্কার দেয়া হবে।

অগ্রণী ব্যাংক-শিশু একাডেমি শিশু সাহিত্য পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন:
১৪১৮ বঙ্গাব্দে কবিতা-ছড়া-গানে যৌথভাবে রাশেদ রউফ ও খালেদ হোসাইন, গল্প-উপন্যাস-রূপকথায় মোহিত কামাল, বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধ-জীবনী প্রবন্ধে কাজী কেয়া, স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে তপন চক্রবর্তী, বই অলংকরণে নাসিম আহমেদ।

১৪১৯ বঙ্গাব্দে কবিতা-ছড়া-গানে হাসনাত আমজাদ, গল্প-উপন্যাস-রূপকথায় দন্তস্য রওশন, স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে শেখ আনোয়ার, নাটকে হানিফ খান, বই অলংকরণে মনিরুজ্জামান পলাশ।

১৪২০ বঙ্গাব্দে কবিতা-ছড়া-গানে আখতার হুসেন, গল্প-উপন্যাস-রূপকথায় দীপু মাহমুদ, বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধ-জীবনী প্রবন্ধে সোহেল আমিন বাবু, অনুবাদ ভ্রমণকাহিনীতে ফারুক হোসেন, নাটকে আ শ ম বাবর আলী, বই অলংকরণে বিপ্লব চক্রবর্তী।

১৪২১ বঙ্গাব্দে কবিতা-ছড়া-গানে রোমেন রায়হান, গল্প-উপন্যাস-রূপকথায় ইমতিয়ার শামীম, বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধ-জীবনী প্রবন্ধে তপন বাগচী, স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে মনসুর আজিজ, বই অলংকরণে মোমিন উদ্দীন খালেদ।

১৪২২ বঙ্গাব্দে কবিতা-ছড়া-গানে পলাশ মাহবুব, গল্প-উপন্যাস-রূপকথায় ইমদাদুল হক মিলন, বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধ-জীবনী প্রবন্ধে রীতা ভৌমিক, স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে ড. আলী আসগর, অনুবাদ-ভ্রমণকাহিনীতে যৌথভাবে মাহফুজুর রহমান ও হাসান খুরশীদ রুমী, নাটকে আশিক মুস্তাফা, বই অলংকরণে সব্যসাচী মিস্ত্রী।

১৪২৩ বঙ্গাব্দে কবিতা-ছড়া-গানে যৌথভাবে মারুফুল ইসলাম ও আহমদ উল্লাহ, গল্প-উপন্যাস-রূপকথায় মোশতাক আহমেদ, বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধ-জীবনী প্রবন্ধে শ্যামলী নাসরীন চৌধুরী, স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে যৌথভাবে ডা. মিজানুর রহমান কল্লোল ও মশিউর রহমান, অনুবাদ-ভ্রমণকাহিনীতে জামিল বিন সিদ্দিক, নাটকে আবুল মোমেন, বই অলংকরণে উত্তম সেন।

শিশু একাডেমি সূত্রে জানা যায় যে, পুরস্কার প্রদানের জন্য সংবাদপত্রে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বই আহবান করা হয়। প্রাপ্ত বইগুলো বিচারের জন্য দেশের খ্যাতিমান কবি, সাহিত্যিক, শিল্পীদের সমন্বয়ে ১৮ সদস্যের একটি বিচারক প্যানেল গঠন করা হয়। প্যানেলের বিচারকরা বইয়ের রচনাশৈলী, সাহিত্যমান ও অলংকরণ বিচার করে তাঁদের রায় দেন। বিচারকদের রায় পাওয়ার পরে বোর্ড অব ম্যানেজমেন্ট তা অনুমোদন করার পর পুরস্কারের ফল ঘোষণা করা হয়।

এবারের অমর একুশে বইমেলায় শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮) পর্যন্ত মোট নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে ২২১টি। রবিবারসহ এবারের বইমেলায় এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৫৭১টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে কবিতার বই ৭৩৯টি, উপন্যাস ৪২৮টি এবং গল্পগ্রন্থ ৩০৪টি, শিশুতোষ ২৪৫টি, গবেষণা গ্রন্থ ৬১টি, ছড়ার বই ৫৪টি, ভ্রমণ ৫৭টি, সায়েন্স ফিকশন ৩৭টি, অভিধান ৮টি এবং অন্যান্য বিষয়ে প্রকাশ পেয়েছে ২৩১টি নতুন বই।

গ্রামীণ সাংবাদিকতার জন্য রবিবার প্রেস কাউন্সিল পদক পেলেন দৈনিক সমকালের বিশেষ প্রতিনিধি রাজীব নূর। মহামান্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ রবিবার পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে প্রেস কাউন্সিল পদক বিতরণ করেন। এর আগে রাজীব নূর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক রিপোর্টের জন্য মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের দেওয়া বজলুর রহমান স্মৃতি পদক লাভ করেন।

বন্ধুরা বইমেলায় আসুন, নিজের পছন্দের বই কিনুন। প্রিয়জনকে বই উপহার দিন। সবাইকে অমর একুশে বইমেলার শুভেচ্ছা। বইমেলা অমর হোক। ভাষা শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করি। জয়তু অমর একুশে গ্রন্থমেলা। জয়তু ভাষার মাস।
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

  • রেজা ঘটক: কথাসাহিত্যিক, চলচ্চিত্র নির্মাতা।

আপনার মন্তব্য