শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৩ জুলাই, ২০১৯ ১৭:০০

হাওড় কন্যা খুঁজছেন নির্মাতা মোক্তাদির ইবনে ছালাম

প্রকৃতির সাথে যুদ্ধ করে নৌকা চালিয়ে হাওড়ের বুক চিড়ে ছুটে চলা এক হাওড় কন্যার খোঁজে বেরিয়েছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা মোক্তাদির ইবনে ছালাম। গল্পের খোঁজে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি হাওড় এলাকা ঘুরে বেরিয়েছেন তিনি। অচিরেই আবারো হাওড় এলাকায় ঘুরতে বের হবেন চিত্রনাট্যকার জান্নাত রিভুকে নিয়ে।

হাওড় পাড়ের বাসিন্দাদের সুখ-দুঃখ, উৎসব-অনুষ্ঠানসহ হাওড় পাড়ের মানুষজনের জীবনযাত্রা নিয়ে কাহিনীচিত্র নির্মাণ করতে যাচ্ছেন নির্মাতা মোক্তাদির ইবনে ছালাম। তাই কাছ থেকে তাদের জীবনচিত্র দেখার জন্য হাওড় পাড়ে ঘুরছেন তিনি।

চলচ্চিত্র নির্মাতা মোক্তাদির ইবনে ছালাম বলেন, জীবনের সাথে প্রকৃতির সাথে যুদ্ধ করে বেঁচে থাকেন হাওড় পাড়ের মানুষজন। বছরের ৬ মাস পানির সাথে আর ৬ মাস শুকনায় বসবাস করেন তারা। বছরের ৬ মাস যে হাওড়ে থৈ থৈ পানি ঢেউ খেলে সেই হাওড়েরই বাকি ৬ মাস ধান চাষ করা হয়। হাওড় পাড়ের বাসিন্দাদের জীবন অনেক বৈচিত্র্যময়।আমার মনে হয় হাওড়বাসীদের নিয়ে এটাই প্রথম কোন ফিকশন তৈরি হচ্ছে।

তিনি বলেন, হাওড়ের নারীদের রয়েছে নানা সমস্যা। সব কিছুকে পায়ে মারিয়ে হাওড় কন্যারা ছুটে চলে জীবনের তাগিদে। জীবন যুদ্ধে কখনো পানিতে কখনো ডাঙায় জীবন যাপন তাদের। হাওড়ের পুরুষরা যে হারে কাজ করেন নারীরাও সে হারেই কাজ করেন। তাই আমরা একজন ‘হাওড় কন্যা’ খুঁজছি। এবং এই হাওড় কন্যাকে ঘিরেই দেখানো হবে হাওড় পাড়ের বাসিন্দাদের জীবনচিত্র।

ঈদের পরপরই এই কাহীনিচিত্রের শুটিং শুরু হবে। হবিগঞ্জ সুনামগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন হাওড় এলাকায় এর শুটিং হবে বলে জানান নির্মাতা মোক্তাদির ইবনে ছালাম ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত