শনিবার, , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২০:৩৬

যে কারণে গাঁজার পানীয় বানাচ্ছে কোকা-কোলা

ক্যাফেইন-ভিত্তিক কোমল পানীয় তৈরি করার জন্য সারা পৃথিবীতে পরিচিত কোকা-কোলা বর্তমানে নতুন একটি মাদক নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে; আর সেটি হলো গাঁজা।

কানাডা'র বিএনএন ব্লুমবার্গ টিভি চ্যানেলের তথ্য অনুযায়ী, স্থানীয় উৎপাদক 'অরোরা ক্যানাবিস'এর সাথে গাঁজার স্বাদযুক্ত কোমল পানীয় উৎপাদনের বিষয়ে আলোচনা করছে কোকা-কোলা।

গ্রাহকদের মাদকাসক্ত করতে নয়, তাদের শারীরিক যন্ত্রণা লাঘবই পানীয় তৈরিকারীদের উদ্দেশ্য।

এবিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানালেও কোকা-কোলা বলছে, গাঁজা সংশ্লিষ্ট পানীয়ের বাজার পর্যবেক্ষণ করছে তারা।

কেন গাঁজার পানীয় তৈরিতে আগ্রহী কোকা-কোলা?
কোকা-কোলা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, "অনেক উৎপাদকের মত আমরাও পর্যবেক্ষণ করছি যে কোমল পানীয় তৈরির ক্ষেত্রে নন-সাইকোঅ্যাক্টিভ ক্যানাবিডিওল বা চিত্ত উত্তেজিত করে না এমন গাঁজাজাতীয় দ্রব্যের ব্যবহার কতটা জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।"

ক্যানাবিডিওল ক্যানাবিস বা গাঁজার একটি উপাদান, যা প্রদাহ, ব্যথা বা খিঁচুনির চিকিৎসার ক্ষেত্রে আরামদায়ক হতে পারে এবং এর কোনো চিত্ত উত্তেজক প্রভাব নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি রাজ্যের উদাহরণ অনুসরণ করে এবছর সারা দেশে গাঁজার বিনোদনমূলক ব্যবহার আইনত বৈধ করতে যাচ্ছে কানাডা।

চিকিৎসা কাজে অবশ্য অনেক আগে থেকেই গাঁজা বৈধ কানাডায়।

এই সিদ্ধান্তের ফলে কানাডায় গড়ে উঠেছে বিশাল আকারের গাঁজা শিল্প।

এবছরের শুরুতে বিয়ার উৎপাদনকারী সংস্থা মোলসন কুরস ব্রুয়িং বলেছে তারা হাইড্রোপোথেক্যারি সংযোজন করে গাঁজা নিষিক্ত পানীয় তৈরি করবে।

বিশ্বখ্যাত 'করোনা' বিয়ার তৈরিকারী সংস্থা কনস্টেলেশান ব্র্যান্ডস গাঁজা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ক্যানোপি গ্রোথের ওপর ৪ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

কোকা-কোলা আর অরোরা'র অংশীদারিত্বের ফলে গাঁজার পানীয়ের বাজারে প্রথম নন-অ্যালকোহলিক পানীয় হিসেবে যাত্রা শুরু হবে কোক'এর।

কেমন হবে এই পানীয়?
তথ্যের উৎসের নাম প্রকাশ না করে বিএনএন ব্লুমবার্গ জানিয়েছে অরোরা'র সাথে কোকা-কোলা'র আলোচনা অনেকদূর অগ্রসর হলেও চূড়ান্ত কোনো চুক্তি হয়নি।

সূত্র জানিয়েছে এই পানীয়টি, "শুধু অবসাদই দূর করবে না, সতেজতা লাভেও সহায়তা করবে।"

আলাদা এক বিবৃতিতে অরোরা জানিয়েছে যে চুক্তি চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত তারা এবিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাবে না।

তবে তারা বলেছে, "গাঁজা নিষিক্ত পানীয়ের বাজারে প্রবেশ করার বিষয়ে অরোরা যথেষ্ট আগ্রহী।"

এই ঘোষণা প্রকাশিত হওয়ার পর সোমবার কোকা-কোলার শেয়ারের মূল্য কিছুটিা বৃদ্ধি পেয়েছে। সূত্র: বিবিসি বাংলা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত