বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯ ইং

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৩ মে, ২০১৯ ১২:৫১

উনের ভাই ন্যাম হত্যাকাণ্ড: ভিয়েতনামি তরুণীর মুক্তি

উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের সৎভাইকে হত্যার অভিযোগে আটক ভিয়েতনামি তরুণীকে মুক্তি দিয়েছে মালয়েশিয়া। দুই বছর কারাগারে আটক রাখার পর শুক্রবার তাকে মুক্তি দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন ওই তরুণীর আইনজীবী।

দোয়ান থি হুঅং নামের ৩০ বছরের ওই তরুণীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি ও ইন্দোনেশীয় তরুণী সিটি আয়েশা কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে কিম জং ন্যামের ওপর নিষিদ্ধঘোষিত রাসায়নিক গ্যাস নার্ভ এজেন্ট ব্যবহার করেছিলেন। এরপরই ন্যাম অসুস্থ হয়ে পড়েন ও মারা যান। গত মার্চে আয়েশার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রত্যাহার করে মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ এবং তাকে ইন্দোনেশিয়া ফেরত পাঠানো হয়।

হুঅংয়ের আইনজীবী হিসইয়াম তেহ জানান, গত মাসে হুঅংয়ের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয় সরকারি কৌঁসুলি। শুক্রবার বিকেলে তাকে ভিয়েতনাম ফেরত পাঠানো হবে। সকালে মুক্তির পরপর তাকে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের হাতে সোপর্দ করা হয়। হ্যানয়গামী ফ্লাইটে তুলে দেওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি তাদের জিম্মায় থাকবেন।

তেহ আরো জানিয়েছেন, বিমানে ওঠার আগে হুঅং গণমাধ্যমের সামনে আসবেন। তবে তিনি কথা বলতে পারবেন না। তার পক্ষ থেকে আইনজীবী লিখিত বক্তব্য পাঠ করবেন।

দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের দাবি, ন্যামকে হত্যা করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন কিম জং উন। উত্তর কোরিয়ার শাসক গোষ্ঠীর সমালোচনা করার কারণেই তাকে হত্যার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। পিয়ংইয়ং অবশ্য এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত