মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১১ আগস্ট, ২০১৯ ২১:০৬

খেলনা মনে করে বোমা কুড়িয়ে এনে কাশ্মীরি শিশুর মৃত্যু

নিহত শিশু আয়ানের ছবি

কাশ্মীরের নীলম উপত্যাকার পাহাড়ি এলাকার গহীন জাবরি গ্রাম। যেখানে একটি নদী ভারত ও পাকিস্তানকে আলাদা করেছে। সীমান্ত এলাকায় হলেও দুটি দেশের সামরিক বাহিনীর গোলাগুলি সংঘর্ষ এড়ানোর মতো দূরত্বে গ্রামটির অবস্থান।

তবে গত মাসের শেষের দিকে সে হিসাব পাল্টে যায়, ভারতীয় বাহিনীর বোমা হামলার কবলে পড়ে গ্রামটি। সে সময় চার বছরের শিশু আয়ান আলীর হাতে আসে একটি অবিস্ফোরিত বোমা। সেই বোমাটি কুড়িয়ে বাড়িতে নিয়ে যায় সে।

আয়ান আলীর চাচা আব্দুল কাইয়ুম বলেন, ‘আয়ান খেলনার মতো দেখতে একটি বোমা হাতে পায় এবং সেটি সে কুড়িয়ে বাড়িতে আনে। সে সময় বাড়ির সবাই সকালের নাস্তায় বসেছিল। বোমাটি বাড়িতে এনে মা ও ভাই-বোনদের দেখাচ্ছিল সে। সবাই তার হাত থেকে জিনিসটি নিতে চেয়েছিল, কিন্তু তার আগেই বিস্ফোরণ হয়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।’ এ ঘটনায় দুজন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

পাকিস্তানি সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এটি গুচ্ছবোমার একটি, যার বিস্ফোরণে বেশ বড়সড়ো এলাকার মানুষজনের প্রাণহানি হতে পারে। আন্তর্জাতিক যুদ্ধনীতি ‘জেনেভা কনভেনশন’ অনুযায়ী এটি বেআইনি।

ভারত সরকার ও সেনাবাহিনী অবশ্য এমন অভিযোগকে নাকচ করে দিয়েছে। ভারতীয় দুই সেনা কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেন, ওইদিন সীমান্তে পাকিস্তানি বাহিনীর গুলির জবাবে তারা হামলাস্থলকে লক্ষ্য করে জবাব দেন।

শুক্রবার রয়টার্সের এক সাংবাদিক জাবরি গ্রামে যান। তবে একার পক্ষে ডিভাইসটি কাদের ছিল বা কোন সূত্র থেকে এসেছিল তা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।


আপনার মন্তব্য

আলোচিত