শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:৩৯

গাছে ভরা স্টেডিয়াম

ছবি: রয়টার্স

২০০৮ সালের ইউরো টুর্নামেন্টের বেশ কয়েকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল যে স্টেডিয়ামে সেখানে এখন আর ফুটবল নেই, আছে মাঠভর্তি গাছ। বিভিন্ন প্রজাতির ৩০০টি গাছ লাগানো হয়েছে স্টেডিয়াম জুড়ে। স্টেডিয়ামটির নাম ওয়্যারদারসি স্টেডিয়াম। ৩২ হাজার দর্শকের ধারণক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়ামটি অস্ট্রিয়ার শহর ক্লাগেনফুর্টে অবস্থিত।

বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আগামী মাস দেড়েক স্টেডিয়ামটিতে হবে না কোনো ফুটবল ম্যাচ। বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরি করতে এক প্রকল্প হাতে নিয়েছে ক্লাগেনফুর্ট কর্তৃপক্ষ। স্টেডিয়ামে গাছ লাগানোর প্রকল্পটির নাম রাখা হয়েছে ‘ফর ফরেস্ট’।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমের সামনে এই প্রকল্পের বিষয়বস্তু জানানো হয়। আগামী রোববার থেকে সাধারণ দর্শকদের জন্যও উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে এই প্রকল্প।

স্টেডিয়ামে গাছ লাগানোর এই ধারণা প্রথম এসেছিল সুইস শিল্পী ক্লাউস লিটম্যানের মাথায়। ইট-পাথরের এই পৃথিবীতে সবুজ বনায়ন কতটা দুর্লভ হয়ে যাচ্ছে, মানুষকে সেই বার্তা দেওয়ার তাড়না থেকেই এমন চিন্তা এসেছে তার মাথায়।
তিনি বলেন, ‘ইট-পাথর-কংক্রিটের সঙ্গে গাছপালার এমন সুন্দর বৈপরীত্য আর কোথাও পাওয়া সম্ভব না। যে পরিস্থিতিতে আমাদের এমন পদক্ষেপ নিতে হচ্ছে, সেটি মোটেও স্বাভাবিক নয়।’

প্রতিবছর বিপুলসংখ্যক গাছ উজাড় হওয়ার কারণে পরিবেশের ওপর যে বিরূপ প্রভাব পড়ছে, সেটির দিকেই ইঙ্গিত করেছেন লিটম্যান। ছয় বছর আগেই শহর কর্তৃপক্ষকে এমন চিন্তার কথা জানিয়েছিলেন বলেও জানান তিনি।

ক্লাগেনফুর্ট কর্তৃপক্ষ অবশ্য গাছগুলো স্থায়ীভাবে স্টেডিয়ামে রাখবে না। আগামী ২৭ অক্টোবর গাছগুলো সরিয়ে নেওয়া হবে স্টেডিয়াম থেকে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত