শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪৭

ভারতের ল্যান্ডার ‘বিক্রম’-এর খোঁজ মিলেছে

খোঁজ মিলল ইসরো থেকে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে পাঠানো ল্যান্ডার তথা বিক্রমের। তবে এখনও এটির সঙ্গে বেতার সংযোগ স্থাপন সম্ভব হয়নি।

রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে অরবিটারের পাঠানো ছবি থেকে হদিস মিলল চাঁদের বুকে হারিয়ে যাওয়া বিক্রমের। ভারতের সংবাদ সংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল (এএনআই)এর তথ্য অনুযায়ী, সংযোগ স্থাপনের সবরকম চেষ্টা চলছে ইসরো থেকে।

ক্ষয়-ক্ষতির অংকটা কত তা এখনই বোঝা যাবে না। অরবিটারের মাধ্যমে থার্মালের সাহায্যে পাওয়া গেছে ল্যান্ডারের ছবি। এটির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে।

ইসরো থেকে  শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) জানানো হয়েছিল, চন্দ্রযান মিশনের প্রদীপ এখনও জ্বলছে। ভারতের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশিন চ্যানেল দূরদর্শনকে দেওয়া ইসরো চেয়ারম্যান কে শিভান জানিয়েছিলেন, দু’সপ্তাহের মধ্যে হারিয়ে যাওয়া ল্যান্ডার খুঁজে বার করা চেষ্টা করা হবে। কিন্তু দু’সপ্তাহ নয়, ৩৬ ঘণ্টার কম সময়ের মধ্যেই পাওয়া গেল  বিক্রমকে।

প্রসঙ্গত, ২২ জুলাই ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন (ইসরো) চন্দ্রযান-২ পাঠায়।

শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) চন্দ্রযান-২ এর চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে ভারতের রোভার ‘বিক্রম’ নামানোর কথা থাকলেও ব্যর্থ হয় মিশনটি।

কথা ছিল, ঠিকঠাক সেখানে পৌঁছুতে পারলে চন্দ্রযান-২এর রোভার প্রজ্ঞান নতুন তথ্য পাঠাবে পৃথিবীতে। সেখান থেকে জানা যাবে চাঁদের বুকে কতটা পানি আছে অথবা সেটি কী অবস্থায় আছে।

ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (ইসরো) বিজ্ঞানীরা বলছেন, ২২ জুলাই মিশন শুরুর পর সবকিছুই ঠিকঠাক চলছিল। সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি মহাকাশযান চন্দ্রযান-২ চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করেছিল ২০ আগস্ট।

কক্ষপথে ঘুরতে থাকা চন্দ্রযান-২এর অরবিটার থেকে আলাদা হয়ে শনিবার প্রথম প্রহরে চাঁদের ৭০ ডিগ্রি দক্ষিণ অক্ষাংশে নিয়ন্ত্রিত অবতরণের কথা ছিল ল্যান্ডার বিক্রমের। তারপর উপযোগী পরিবেশে ল্যান্ডার বিক্রম থেকে বেরিয়ে আসত রোবটযান প্রজ্ঞান।

কিন্তু তার আগেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

চাঁদের ওই অংশটি এখনও মানুষের কাছে অজানা। সেখানে জমাট বরফ আকারে পানি থাকার বিষয়ে বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত হয়েছিলেন ভারতের চন্দ্রযান-১ অভিযান থেকে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত