শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০ ইং

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২০:৩৫

ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল: উত্তাল আসাম-ত্রিপুরা, সেনা মোতায়েন

ভারতের সংসদে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির উত্থাপিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসাম ও ত্রিপুরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে রাজ্য দুটির বেশকিছু এলাকায়। দেশটির গণমাধ্যমের খবরে এমন জানানো হয়েছে।

সোমবার সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বিলটি উত্থাপন করেন। ক্ষমতাসীন দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় বিলটি পাসে কোনো বেগ পেতে হয়নি তাদের। বুধবার (১১ ডিসেম্বর) সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি (সিএবি) পেশ করা হয়। এখানে পাস হলে তা আইনে পরিণত হবে।

আসামের সহ বিভিন্ন স্থানে বিলের প্রতিবাদে উত্তর-পূর্বের ছাত্র সংগঠনের পক্ষে বনধ্ ডাকা হয়। মূল রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবাদে শামিল হন বিক্ষোভকারীর। স্থানীয় রেল কর্তৃপক্ষ বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, অবরোধের কারণে অনেক ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ব্যাংক ও বাজার।

এদিকে গোহাটিতে কারফিউ জারি করা হয়েছে এবং রাজ্যটির দশটি জেলায় স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যা সাতটা থেকে মোবাইল ইন্টারনেট সার্ভিস স্থগিত রয়েছে। এদিন বিক্ষোভকারীরা গোহাটি এয়ারপোর্টে আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালকে আটকে রাখেন। তবে তার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মী তাকে নিরাপদে এখান থেকে নিয়ে যান।

এনডিটিভি জানিয়েছে, আসাম ও ত্রিপুরায় ৫ হাজার সেনা পাঠানো হয়েছে। বিক্ষোভ সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রেখেছে সেনাবাহিনীর সদর দফতর। সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র বলেন, ‘ইতোমধ্যে সেনা সদস্যদের পাঠানো হয়েছে। তারা পুলিশ ও প্রশাসনকে সহায়তা করবে। শান্তি বজায় রাখতে সেনাবাহিনী ওইসব এলাকায় ফ্ল্যাগ মার্চ করবে।’

উত্তর ত্রিপুরায় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়েছে পুলিশ। ওই এলাকার আতঙ্কিত অন্য জাতির বাসিন্দারা বাড়ি ফিরতে না পেরে থানায় এসে আশ্রয় নেন। স্থানীয় একটি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছে ৭০টি পরিবার। তাদের বাংলাদেশে ফিরে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত