রবিবার, , ১৮ নভেম্বর ২০১৮ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৯:২২

আড়ংকে জরিমানা

একই পোশাক জায়গা ভেদে ভিন্ন ভিন্ন দামে বিক্রির অভিযোগে আড়ংকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটির আড়ং শোরুমে যে থ্রি-পিস তিন হাজার টাকায় বিক্রি করছে সেই একই থ্রি-পিস মগবাজার আড়ংয়ে বিক্রি হচ্ছে আড়াই হাজার টাকায়। এ অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করে ভোক্তার হাতে তুলে দেয় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

জানা যায়, গত রমজানে রাজীব হায়দার নামের এক ক্রেতা রাজধানীর মগবাজারের আড়ংয়ের বিক্রয় কেন্দ্র থেকে তার স্ত্রীর জন্য একটি থ্রি-পিস কেনেন। যার দাম আড়াই হাজার টাকা। বাসায় যাওয়ার পর তার স্ত্রীর বোন এই থ্রি-পিস পছন্দ করেন। তাই সেই একই থ্রি-পিস কিনতে বসুন্ধরা সিটির আড়ং বিক্রয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখেন দাম ৩ হাজার টাকা। রাজীব হায়দার পোশাকটি কিনে বাসায় আনেন।

পরে মিলিয়ে দেখেন একই পোশাক কিন্তু কোড নাম্বার ভিন্ন। এরপর তিনি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে অভিযোগ করেন।

এ অভিযোগ শুনানি করেন অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক জান্নাতুল ফেরদাউস। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় আড়ং বিক্রয় প্রতিষ্ঠানকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করে ভোক্তার হাতে তুলে দেন।

সোমবার অধিদপ্তরের উপপরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, আড়ং একটি নামিদামি দেশীয় প্রতিষ্ঠান। তাদের কাছে ক্রেতারা এভাবে প্রতারিত হবে- এটা আমরা প্রত্যাশা করি না। তবে আড়ং কর্তৃপক্ষ শুনানিতে বলেছে, তাদের ম্যানেজমেন্টের ভুলের কারণে মগবাজারে দাম কম রাখা হয়েছে। থ্রি-পিসটি মূল্য নির্ধারণের সময় ওড়নার দাম ধরা হয়নি। তাই আড়াই হাজার টাকা ভুলে নির্ধারণ করা হয়েছে; যার প্রকৃত মূল্য তিন হাজার টাকা। প্রতিষ্ঠানটি তাদের ভুল স্বীকার করে।

পরে ক্রেতার সঙ্গে সমঝোতা হওয়ায় অধিদপ্তর আড়ংকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করে। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে এ ধরনের অপরাধ যেন না করে সেজন্য প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করেছে অধিদপ্তর।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত