রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৭ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৬:৪২

৭ গণমাধ্যম মালিক মন্ত্রিসভায়

একাদশ জাতীয় সংসদের মন্ত্রিসভায় গণমাধ্যমের সাতজন কর্ণধারের জায়গা হয়েছে। এদের মধ্যে তিনজন পূর্ণমন্ত্রী, তিনজন প্রতিমন্ত্রী ও একজন উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।

সোমবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মন্ত্রিসভার সকল সদস্যকে শপথ করান।

গণমাধ্যমের মালিকেরা হলেন গোলাম দস্তগীর গাজী, মো. তাজুল ইসলাম, শ ম রেজাউল করিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মো. শাহরিয়ায় আলম, কামাল আহমেদ মজুমদার এবং  মহিবুল হাসান চৌধুরী।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন মো. তাজুল ইসলাম। তিনি কুমিল্লা-৯ আসন থেকে জয়ী হন। মো. তাজুল ইসলাম দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ এর কর্ণধার।

এছাড়া বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন গোলাম দস্তগীর গাজী। তিনি নারায়ণগঞ্জ ১ আসন থেকে নির্বাচিত হন। তিনি একাধিক গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার। তার মালিকানায় রয়েছে জিটিভি, সারাবাংলা (অনলাইন পত্রিকা), দৈনিক সারাবাংলা (প্রকাশিতব্য)।

এদিকে শ ম রেজাউল করিম পিরোজপুর-১ আসন থেকে নির্বাচিত হন। তিনি পেয়েছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। আজকের দর্পণ নামে একটি দৈনিকের কর্ণধার তিনি।

প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি দিনাজপুর-২ আসন থেকে নির্বাচিত হন। তার মালিকানায় রংধনু নামে একটি টিভি অনুমোদন পেয়েছে।

দুরন্ত টিভির মালিকানায় রয়েছেন মো. শাহরিয়ায় আলম। তিনি প্রতিমন্ত্রী হিসেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন। রাজশাহীর-৬ আসন থেকে তিনি নির্বাচিত হন।

প্রতিমন্ত্রী হিসেবে কামাল আহমেদ মজুমদার শিল্প মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন। তার মালিকানায় রয়েছে মোহনা টিভি। কামাল আহমেদ মজুমদার ঢাকা-১৫ থেকে জয়ী হন।

এছাড়া মহিবুল হাসান চৌধুরী উপমন্ত্রী হিসেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন। তিনি চট্টগ্রাম-৯ আসন থেকে নির্বাচিত হন। তার মালিকানায় রয়েছে বিজয় টিভি।

একাদশ জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীসহ ২৫ মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও ৩ জনকে উপমন্ত্রী করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত