শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

৩১ মে, ২০১৯ ০২:৩৭

অনেকদিন পর জনসমক্ষে এরশাদ

বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় দীর্ঘদিন জনসমক্ষে আসেননি এরশাদ। তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নানা মহলে নানা আলোচনার সময়ে নিজের সম্পদ ট্রাস্টেও দান করে দিয়েছেন তিনি। তার মৃত্যু পরবর্তী জাতীয় পার্টির অবস্থা কেমন হবে এনিয়ে দলের মধ্যেও প্রকাশ্য আলোচনাও চলছিল। এতকিছুর পর এরশাদ আসেননি জনসমক্ষে। অবশেষে এলেন তিনি। উপস্থিত হলেন কূটনীতিকদের সম্মানে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের আয়োজনে ইফতার মাহফিলে।

বৃহস্পতিবার গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলে অনুষ্ঠিত এই মাহফিলে ইফতারের কয়েক মিনিট আগে এরশাদ একটি হুইলচেয়ারে করে অনুষ্ঠানে আসেন। হুইলচেয়ারে বসেই তিনি অতিথিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

অনুষ্ঠানে কূটনীতিকসহ আগত অতিথিদের স্বাগত জানান জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের। পরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি সবাইকে ঈদের আগাম শুভেচ্ছা জানান। অনুষ্ঠানে জাপার জ্যেষ্ঠ কো–চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ ছিলেন না।

ইফতারে জার্মানির রাষ্ট্রদূত পিটার ফারহেন হোল্ড, ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত মেরি এনিক বুরদিন, ভুটানের রাষ্ট্রদূত সোনাম তবদেন রাগবি, ওমানের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স তাবিদ সেলিম আবদুল্লাহ আল আলাই, ভারতের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্বজিৎ​ দে ছাড়াও যুক্তরাজ্য, চীন, কাতার, আফগানিস্তান, জাপান, ইন্দোনেশিয়া, ডেনমার্ক, নেপাল, ভিয়েতনাম ও লিবিয়ার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিকদের মধ্যে মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজামসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

ইফতারে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা-১৭ আসনের আওয়ামী লীগের সাংসদ আকবর হোসেন খান পাঠান প্রমুখ অংশ নেন।

জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন বাবলু, কেন্দ্রীয় নেতা কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, সাংসদ মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, সাংসদ রওশন আরা মান্নান, আজম খান, এ টি ইউ তাজ রহমান, সোলায়মান আলম শেঠ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। তবে জ্যেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, ফকরুল ইমামসহ অনেকে আসেননি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত