সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

২৯ জুলাই, ২০১৯ ১৪:৩৭

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে আওয়ামী লীগের তিন দিনের কর্মসূচি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে আওয়ামী লীগ তিন দিনব্যাপী জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করবে। ৩১ জুলাই থেকে সারাদেশে শুরু হতে যাওয়া এই কর্মসূচিতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হবে এবং লিফলেট বিতরণ করা হবে।

সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেছেন, সরকার ডেঙ্গু প্রতিরোধ এবং বন্যাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে। এই চ্যালেঞ্জ অনতিক্রম্য নয়। আমরা সমন্বিতভাবে চেষ্টা করে ডেঙ্গুকে প্রতিরোধ করবো এবং বন্যার ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনবো।

ওবায়দুল কাদের জানান, লন্ডনে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কলের মাধ্যমে আজকের এ সভায় যোগ দেন। তিনি প্রায় ২৫ মিনিট দলীয় নেতাদের সঙ্গে সামগ্রিক বিষয়ে আলোচনা করেন।

ডেঙ্গু মোকাবিলায় দুই সিটি করপোরেশনে মেয়রের ব্যর্থতার বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, তারা এখন কাজ করছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সিটি করপোরেশনের মেয়র, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে প্রতিনিয়ত কথা বলছেন।

দুই মেয়রের অসংলগ্ন কথার বিষয়ে জানতে চাইলে কাদের বলেন, কথাবার্তা স্লিপ হতে পারে। সবাই মানুষ।

যেকোনো বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কথা না বলা পর্যন্ত প্রশাসন নিষ্ক্রিয় থাকে এমন অভিযোগের জবাবে কাদের বলেন, দেশে যেকোনও জরুরি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কথা বলেন, এবারও বলেছেন। এটাই স্বাভাবিক। তার কথা সবাইকে উৎসাহিত করে।

উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহীদের এবং বিদ্রোহে মদদদাতাদের শোকজ, দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত বলবৎ আছে বলে উল্লেখ করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

তিনি বলেন, বন্যার কারণে আমরা যাচাই বাছাইয়ের জন্য সময় নিচ্ছি। প্রক্রিয়াটা কোনোভাবেই স্থগিত বা বাদ হচ্ছে না। এটা প্রক্রিয়াধীন আছে, প্রক্রিয়া শেষ হলে আমরা ইমপ্লিমেনটেশনে যাবো।

ফেরিঘাটে উপসচিবের গাড়ির জন্য ফেরি আটকে রাখায় এক কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় সরকারের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় আছেন যে যত ক্ষমতাশালী কিংবা প্রভাবশালী হোন না কেন, সে আমাদের দলের হোক বা সরকারের হোক, কেউ অন্যায় করে পার পাবেন না। প্রত্যেকটা বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে, খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি কেউ অন্যায় করেন, তাকে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, আবদুর রহমান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, এনামুল হক শামীম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত