শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:২১

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ বিএনপির সাংসদ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আন্তঃনগর ট্রেনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই আসনের সংসদ সদস্য বিএনপি নেতা মো. হারুনুর রশীদের খোঁজ নেওয়ার কথা উল্লেখ করে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বিএনপির এই এমপি।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্থ অধিবেশনে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তরের সময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

মন্ত্রীদের প্রশ্নোত্তর পর্বে হারুনুর রশীদ তারকা চিহ্নত প্রশ্ন ৫৪ উত্থাপন করেন। রেলপথ বিষয়ক মন্ত্রীকে ওই প্রশ্ন করে উত্তর জানার পর হারুনুর রশীদ সম্পূরক প্রশ্ন করেন।

এসময় তিনি বলেন, আমি আপনার (স্পিকারের) মাধ্যমে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। কিছুদিন আগে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে সরাসরি ঢাকা পর্যন্ত আন্তঃনগর ট্রেন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই অনুষ্ঠানে আমি দাওয়াত পেয়েছিলাম, কিন্তু উপস্থিত থাকতে পারিনি। আমাকে দেখতে না পেয়ে প্রধানমন্ত্রী জিজ্ঞাসা করেছিলেন, হারুন কোথায়? এ কারণে আমি সংসদ নেতার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

এরপর মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে হারুনুর রশীদ ঢাকা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত দ্রুত ডাবল রেললাইন স্থাপনের অনুরোধ জানান।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে যে ছয়জন নির্বাচিত হন তাদের মধ্যে হারুনুর রশীদ একজন। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসন থেকে জয়ী হন। এরপর গত ২৯ এপ্রিল তিনিসহ বিএনপির চার সাংসদ শপথ নেন।

বিএনপির নির্বাচিত সাংসদদের মধ্যে থেকে গত ২৫ এপ্রিল সাংসদ হিসেবে শপথ নেন ঠাকুরগাঁও থেকে নির্বাচিত জাহিদুর রহমান। এর দুদিন পর জাহিদকে দল থেকে বহিষ্কার করে বিএনপি। হারুনুর রশীদসহ চারজন সাংসদ শপথ নেন ২৯ এপ্রিল। তবে এই চারজনকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। শপথ নেওয়ার পর হারুন বরং বলেছিলেন, দলীয় সিদ্ধান্ত মেনেই শপথ নিয়েছেন। বিএনপির আরেক নির্বাচিত সাংসদ এবং দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অবশ্য শপথ নেননি। তিনি শপথ না নেওয়ায় তার শূন্য আসন বগুড়া-৬ এ উপনির্বাচন হয়। সেখান থেকে নির্বাচিত হন বিএনপির গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত