রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ ইং

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:৪৯

শ্যামল সিলেট’র দেড় যুগপূর্তিতে মিলন মেলা

নানা ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে রোববার ১৯ বছরে পদার্পণ করল নতুন শতাব্দীর দৈনিক শ্যামল সিলেট। ১৮ বছর আগে যাত্রা শুরুর এই দিনটিতে উৎসব আনন্দে মেতে উঠেছিল শীর্ষস্থানীয় দৈনিক শ্যামল সিলেট পরিবার।

এ আনন্দে শরিক হতে এসেছিলেন পাঠক, লেখক, বিজ্ঞাপনদাতাসহ শুভানুধ্যায়ীরাও। শুভেচ্ছা জানিয়ে শ্যামল সিলেট’র অব্যাহত অগ্রযাত্রা ও সমৃদ্ধি কামনা করেন, রাজনৈতিক, ব্যবসায়ী, পেশাজীবী নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা, কবি-লেখক-সাহিত্যিকসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ।

সবার সরব পদচারণায় বাংলা নববর্ষের প্রথমদিন যেন উচ্ছ্বসিত হাজারো প্রাণের মিলন মেলায় পরিণত হয় শ্যামল সিলেট কার্যালয়। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সাজানো হয় কার্যালয়টি। ভেতর ও বাইরে নানা রঙের বেলুন-প¬্যাকার্ড ঝুলানো হয়। রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় পত্রিকাটির নির্বাহী সম্পাদক আবদুল মুকিত অতিথিদের নিয়ে কার্যালয়ে কেক কেটে কর্মসূচির সূচনা করেন। এসময় সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান একে অপররের মুখে শ্যামল সিলেট'র প্রতিষ্টাবার্ষিকীর কেক তুলে দিয়ে সম্প্রীতির অটুট বন্ধন জানান দেন। বর্তমান ও সাবেক এই দুই জনপ্রতিনিধি-ই নন, উপস্থিত অতিথিদের সামনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ অপরাপর দলের শীর্ষস্থানীয় নেতারা একে অপরকে মিষ্টিমুখ করান। যা সবাইকে মুগ্ধ করে, করতালির স্বাগত জানান তারা।

শ্যামল সিলেট কার্যালয়ে আয়োজিত দিনব্যাপি দেড় যুগপূতি অনুষ্ঠানে সামিল হয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশের উপ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট জেলা কমান্ডার সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েল, সিলেট চেম্বার সভাপতি খন্দকার সিপার আহমদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, স্টেশন ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট ই ইউ শহীদুল ইসলাম শাহীন, সিলেট চেম্বারের সাবেক প্রশাসক ফারুক মাহমুদ চৌধুরী, প্রবিণ সাংবাদিক ও জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আজিজ আহমদ সেলিম, প্রবিণ সাংবাদিক ও ইমজার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আল-আজাদ, সাংবাদিক ও কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি তাপস পুরকায়স্থ, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির, সিলেট চেম্বারের পরিচালক আমিরুল ইসলাম চৌধুরী দুলু, সিলেট  চেম্বারের সাবেক পরিচালক তাহমিন আহমদ, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব’র সহ সভাপতি সাত্তার আজাদ, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব’র সাধারণ সম্পাদক শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ, মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত সাদেক, ওয়ার্কার্স পার্টির সিকান্দর আলী, ব্লাস্ট’র প্রধান নির্বাহী ইরফানুজ্জামান চৌধুরী, জালালাবাদ পত্রিকার নির্বার্হী সম্পাদক আবদুল কাদের তপাদার, কাজীরবাজার পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ সুজাত আলী,  ওয়ার্ড কাউন্সিলর এডভোকেট সালেহ আহমদ সেলিম, ইমজার সভাপতি বাপ্পা ঘোষ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর আহমদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দেবু, টেলিভিশন সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও মানবজমিনের ব্যুরো প্রধান ওয়েছ খছরু, মেট্টোপলিটন ইউনিভার্সিটির সহকারি প্রক্টর এডভোকেট আব্বাস উদ্দিন, সিলেট ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’র সভাপতি মামুন হাসান, সহ সভাপতি দুলাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শংকর দাস, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব’র সভাপতি মুহিত চৌধুরী, সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি ও বাংলার বারুদের নির্বাহী সম্পাদক বাবর হোসেন, সিটি সেন্টার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শিপন আহমদ, জেলা জাসাসের সভাপতি জসিম উদ্দিন, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবদলু আলীম তুষার, সিলেট প্রতিদিন॥'র ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ফয়সল আহমদ মুন্না,  কাজীরবাজার পত্রিকার বার্তা সম্পাদক সোয়েব বাসিত, এ্যাসিড সন্ত্রাস নির্মূল কমিটির সাধার সম্পাদক জুরেজ আবদুল¬াহ গুলজার, সমকালের স্টাফ রিপোর্টার মুকিত রহমানী, বৈশাখী নিউজ টোয়েন্টি ফোর’র সম্পাদক মোহাম্মদ মহসীন, গ্রাম সুরমার সম্পাদক হাসিনা বেগম চৌধুরী, সাংবাদিক নাজমুল কবির পাবেল, শফিকুর রহমান, শাহীন আহমদ, সাজুল লস্কর, সাহিত্যিক অজিত রায় ভজন, রানা কুমার সিংহ, ছাত্র জমিয়ত সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ উদ্দিন, ছাত্র জমিয়ত নেতা এমাদ উদ্দিন সালিম, ইয়াহইয়া হামিদী, মানসুর বিন সালেহসহ সিলেটের রাজনৈতিক, সামাজিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ রাত পর্যন্ত শ্যামল সিলেট কার্যালয়ে এসে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

এদিকে শ্যামল সিলেট'র বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে বাদ আসর শ্যামল সিলেট কার্যালয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মিলাদ মাহফিলেও রাজনৈতিক, পেশাজীবী নেতৃবন্দসহ বিভিন্ন বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ অংশ নেন। মিলাদ শেষে শিরণী বিতরণ করা হয়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত