আজ বুধবার, , ১৮ জুলাই ২০১৮ ইং

স্পোর্টস ডেস্ক

১০ জুলাই, ২০১৮ ০০:৫২

ফ্রান্সের বিপক্ষে ভয়-ডরহীন ফুটবল খেলবে বেলজিয়াম

রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে তারুণ্যের ফ্রান্সের সামনে বেলজিয়ামের ‘সোনালী প্রজন্ম’। প্রথমবারের মতো বিশ্ব মঞ্চে ফাইনালে ওঠার হাতছানি বেলজিয়ানদের। আর নিজেদের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন ফরাসিদের। মঙ্গলবার সেন্ট পিতার্সবুর্গ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবে দুই দল।

আর প্রথম সেমি ফাইনালে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবার আগে বেলজিয়াম কোচ রবার্তো মার্তিনেজ জানিয়েছেন ভয়-ডরহীন ফুটবল খেলবে তার দল।

ঐতিহ্যের কথা বললে বেলজিয়ামের তুলনায় ফ্রান্স অনেক এগিয়ে। এবারের আসরে টপ ফেভারিট হিসেবে ফ্রান্স স্বীকৃতি না পেলেও আলোচনায় ছিল ভালোভাবেই। অন্যদিকে দারুণ সব ফুটবলারে ভরা বেলজিয়াম সেমি ফাইনালে জায়গা করে নেবে এমনটা প্রত্যাশা করেননি অনেকেই। নিজেদের ইতিহাসে এর আগে একবারই মাত্র সেমি ফাইনালে খেলেছিল দলটি। সেটি ১৯৮৬ সালে মেক্সিকো বিশ্বকাপে।

ইতিহাস-ঐতিহ্যে ফ্রান্স এগিয়ে থাকলেও দলটির বিপক্ষে ভয়-ডরহীন ফুটবল খেলবে মার্তিনেজ শিষ্যরা। বেলজিয়ামের স্প্যানিশ কোচ বলেন, ‘যদি আমরা কোনো ভয় নিয়ে এই ম্যাচ খেলি তবে আমরা নিজেদের হারিয়ে ফেলব। ভয়হীন খেলাটাই একমাত্র আমাদের সাহায্য করবে।’

দুর্দান্ত ফ্রান্সের বিপক্ষে মার্তিনেজ তার শিষ্যদের উপর আস্থা রাখছেন, ‘এই খেলোয়াড়রা একসাথে অনেক বছর ধরে খুব ভালোভাবে পরিশ্রম করছে। তারা আজ যেখানে আছে সেটা তাদের প্রাপ্য।’ সেমি ফাইনালে একটা দল হিসেবে খেলার উপর জোর দিচ্ছেন বেলজিয়াম কোচ, ‘একটা দল হয়ে গড়ে ওঠার জন্য আমরা কাজ করেছি। আমার মতে এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক। খেলোয়াড়দের সামর্থ্য ও মেধা গুরুত্বপূর্ণ। তবে বিশ্বকাপের মতো আসরে একটা দল হয়ে খেলাটা অপরিহার্য।’

কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলকে বাড়ি পাঠিয়ে সেমি ফাইনালে উঠে এসেছে বেলজিয়াম। তাদের সোনালী প্রজন্মের খেলোয়াড়দের দিকে তাকিয়ে সবাই। রোমেরো লুকাকু, কেভিন ডি ব্রুইন, ইডেন হ্যাজার্ডের মতো তারকা তাদের দলে। যারা ক্ষমতা রাখেন যে কোনো দলকে হারাতে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত