মঙ্গলবার, , ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

ক্রীড়া প্রতিবেদক

০৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:২৫

১০ ‘ফিউচার সিক্সার্স’ খুঁজে পেলো সিলেট সিক্সার্স

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজি সিলেট সিক্সার্সের আয়োজনে সম্পন্ন হলো ‘ফিউচার সিক্সার্স’ ক্যাম্পেইনের। বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে চূড়ান্ত বাছাইয়ের মাধ্যমে সমাপ্তি হয় এ ক্যাম্পেইনের। এ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে খুঁজে বের করা হয় ১০ প্রতিভাবান ব্যাটসম্যানকে। যারা বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে সিলেট সিক্সার্সের মূল দলের সঙ্গে অনুশীলনের সুযোগ পাবেন।

এর আগে সিলেট বিভাগের প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান খুঁজে বের করতে সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ থেকে সাত শতাধিক প্রতিভাবান ব্যাটসম্যানদের নিয়ে এ ক্যাম্পেইন চালানো হয়। গত ৪ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) ক্যাম্পেইনের প্রথমদিন সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে সিলেট ও সুনামগঞ্জের পাঁচ শতাধিক তরুণ ক্রিকেটারের মধ্য থেকে নির্বাচকরা বাছাই করেন ৩১ জন ক্রিকেটারকে। ৫ ডিসেম্বর (বুধবার) ক্যাম্পেইনের দ্বিতীয়দিন মৌলভীবাজার জেলা স্টেডিয়ামে মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জের দুই শতাধিক তরুণ ক্রিকেটারের মধ্য থেকে নির্বাচকরা বাছাই করেন ২০ জন ক্রিকেটারকে।

দুই দিনের প্রাথমিক বাছাই শেষে আজ বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) এ ৫১ জনকে নিয়ে শুরু হয় চূড়ান্ত বাছাই। চূড়ান্ত বাছাই শেষে সেরা ১০ ব্যাটসম্যান বেছে নেন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার ও সিলেট সিক্সার্সের অলরাউন্ডার নাসির হোসেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবির বয়সভিত্তিক দলের নির্বাচক ও সাবেক জাতীয় ক্রিকেটার আব্দুল হান্নান সরকার ও সিলেট সিক্সার্সের সহকারী কোচ একেএম মাহমুদুল ইমন।

পরে তাদের হাতে ইয়েস কার্ড তুলে দেন সিলেট সিক্সার্সের চেয়ারম্যান শাহেদ মুহিত, সিলেট সিক্সার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাশেদ আব্দুল্লাহ-সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

চূড়ান্ত বাছাই শেষে সেরাদের সিক্সার্স ক্যাম্পেইনে সেরা ১০ ব্যাটসম্যান হলেন, সুহাদুল ইসলাম, মোমিনুল ইসলাম, আতাউর রহমান ফাহিম, আসাদুল্লাহ আল গালিব, মিজানুর রহমান সায়েম, তরিকুল ইসলাম, স্বগৌত তালুকদার অর্ক, জয়ন্ত দত্ত, আরমান মাহমুদ সৌরভ ও সজীব সরকার।

এছাড়াও আরো ৫০ জন প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান বাছাই করা হয়েছে দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণের জন্য।

এর আগে সিলেট সিক্সার্সের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ ও অনস্পটে প্রায় সহস্রাধিক তরুণ ক্রিকেটার এবারের ফিউচার সিক্সার্সের ব্যাটসম্যান হান্ট প্রোগ্রামের জন্য নাম নিবন্ধন করে।

এ ব্যাপারে সিলেট সিক্সার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহেদ মুহিত বলেন, 'সিলেটের তরুণ প্রজন্মকে খেলাধূলামুখী করতে সম্ভাব্য নানা ধরনের পরিকল্পনা আমরা হাতে নিয়েছি। এরই মধ্যে ফিউচার সিক্সার্স ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে কিছু পরিকল্পনার বাস্তবায়ন হয়েছে। আর দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনাগুলো এখনও বাস্তবায়নের অপেক্ষায় আছে। আপনারা জেনে আনন্দিত হবেন, নতুন বছরেই সিলেট সিক্সার্স পূর্ণাঙ্গ ক্রিকেট একাডেমির কার্যক্রম শুরু করছে। যেখানে সিলেটের প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের তৈরি করা হবে ভবিষ্যতের জন্য।'

সিলেট সিক্সার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাশেদ আব্দুল্লাহ বলেন, 'ফিউচার সিক্সার্স ক্যাম্পেইনে সিলেটের ক্রিকেটারদের আগ্রহে আমরা অভিভূত। আমরা আমাদের প্রধান উপদেষ্টা অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের কাছে কৃতজ্ঞ। তাঁর কারণেই কিন্তু সিলেট সিক্সার্স একটু একটু করে নিজেদের স্বপ্ন পূরণ করতে পারছে।'

ফিউচার সিক্সার্সের বিজয়ী ১০ ব্যাটসম্যান বিপিএলের পুরো মৌসুমে থাকবে সিলেট সিক্সার্সের মূল দলের সঙ্গে। আর সেরা ৬০য়ে থাকা ব্যাটসম্যানদের জন্য দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নিবে সিক্সার্স কর্তৃপক্ষ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত