বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

স্পোর্টস রিপোর্টার

০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:৪০

লজ্জ্বা

বৃষ্টিও বাঁচাতে পারলো না বাংলাদেশকে। হাতে ৪ উইকেট নিয়ে ১০ ওভারও ব্যাটিং করতে পারলো না সাকিবরা। বাংলাদেশ ক্রিকেটকে লজ্জ্বায় ডুবালো বাংলাদেশ।

একমাত্র টেস্টেআফগানিস্তানের সাথে হেরে গেলো ২২৪ রানের বিশাল ব্যবধানে।

চট্টগ্রাম টেস্টের শেষ দিনে প্রায় দুই সেশন ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। তারপরেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট বাঁচাতে পারেনি বাংলাদেশ। বৃষ্টি বিলম্বের পর দিনের শেষভাগে ১৮.৩ ওভার যখন বেঁধে দেওয়া হয়। তেমন পরিস্থিতিতে ৩.৩ ওভার বাকি রেখে ১৭৩ রানে গুটিয়ে গেছে স্বাগতিকরা। এক রশিদ খানের ঘূর্ণিতে দুই ইনিংসে কাবু হয়েছে স্বাগতিকরা।

মোহাম্মদ নবীর বিদায়ী টেস্ট জিততে রোববারই জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিল আফগানিস্তান। তবে তাদের সেই জয়ের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল বৃষ্টি। বার বার বৃষ্টি হানা দিয়ে তাদের হতাশা বাড়ালেও ড্রয়ের সুযোগ করে দিয়েছিল বাংলাদেশের। কিস্তু ব্যাটিং ব্যর্থতায় দিনের শেষ ভাগে কোনও প্রতিরোধই গড়তে পারেনি সাকিবরা।
শেষভাগে শুরুতেই পতন ঘটে সাকিব আল হাসানের উইকেটের। জহির খানের প্রথম বলে কটবিহাইন্ড হলে হারের শঙ্কা ঘিরে ধরে তখনই। তিনি বিদায় নেন ৪৪ রানে। সাকিবের বিদায়ের পর মেহেদী হাসান মিরাজও দ্রুত সাজঘরের পথ ধরতেন। জহির খানের বলে শর্ট লেগে তার ক্যাচ লুফে নিতে পারেনি আফগানিস্তান। তবে কিছুক্ষণ পরে রশিদ খানের বলে থিতু হতে পারেননি আর। গুগলিতে পুরোপুরি পরাস্ত হন মিরাজ। আম্পায়ার আউট দিলে রিভিউ নিয়েছিলেন। সেখানেও মেলেনি সুখবর। ১২ রানে ফেরেন তিনি।

নতুন নামা তাইজুলের আউটটি ছিল বিতর্কিত। আম্পায়ার লেগ বিফোরে আঙুল তুললেও ব্যাটে লেগেছিল বল। কিন্তু রিভিউ না থাকায় সাজঘরে ফেরেন তিনি। সৌম্য ও নাঈম মিলে কিছুক্ষণ আশা জাগালেও রশিদ খানের ঘূর্ণিতে সৌম্য বিদায় নিলে হারের লজ্জায় পড়তে হয় বাংলাদেশকে। সৌম্য ফেরেন ১৫ রানে।

প্রথম ইনিংসে সাফল্যের পর এই ইনিংসেও ৪৯ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন রশিদ। প্রথম ইনিংসে ৫টি নিয়ে ম্যাচ সেরা তিনি। প্রথম ইনিংসে কোনও উইকেট না পেলেও এই ইনিংসে তিনটি উইকেট নিয়েছেন জহির খান।

অবশ্য তার আগে বৃষ্টির কারণে শেষ দিনের প্রথম সেশন ভেসে যাওয়ার পর মাঝপথে গড়িয়েছিল খেলা। বেলা ১টায় দু দল মাঠে নামলেও প্রায় তিন ওভার সম্পন্ন করা গেছে সে সময়। ফের বৃষ্টি হানা দিলে খেলা বন্ধ থাকে চা পানের বিরতি পার হয়ে ঘণ্টা খানেক পর্যন্ত। বৃষ্টি থামলে বিকাল ৪টা ২০ মিনিটে শেষ সেশনে খেলতে নেমেও ব্যাট হাতে প্রতিরোধ গড়তে পারেনি স্বাগতিকরা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত