বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

স্পোর্টস ডেস্ক

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৩:২৮

পাকিস্তান যাচ্ছেন না শ্রীলঙ্কার ১০ ক্রিকেটার

পাকিস্তানে ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার ওপরেই হয়েছিল সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটা। এরপর নিরাপত্তা আশঙ্কায় দীর্ঘদিন ঘরের মাঠে আর ক্রিকেট আয়োজন করতে পারেনি পাকিস্তান। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ঘরের মাঠে সিরিজ আয়োজন করতে পারলেও সেই সংখ্যা সীমিত।

নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কা এখনও কেটে যায়নি বিদেশি ক্রিকেটারদের। তেমন আশঙ্কায় পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছেন শ্রীলঙ্কার ১০ সিনিয়র ক্রিকেটার।

পাকিস্তানে তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা শ্রীলঙ্কার। লঙ্কান বোর্ড সোমবার সভায় প্রাথমিক স্কোয়াডে ডাক পাওয়া ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার সব প্রস্তুতির কথা জানিয়েছিল। সঙ্গে তাদের এই স্বাধীনতাও দিয়ে রেখেছিল আশঙ্কা থাকলে নাম প্রত্যাহার করে নিতে।

তেমন আশঙ্কায় লঙ্কান ক্রিকেটারদের একটা বড় বহর সরে দাঁড়িয়েছে আসন্ন সিরিজ থেকে। ওয়ানডে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে তো ননই, টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গাও যাচ্ছেন না এই সফরে। তার সঙ্গে আরও রয়েছেন- নিরোশান ডিকবেলা, কুশল পেরেরা, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, থিসারা পেরেরা, আকিলা ধনাঞ্জয়া, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, সুরাঙ্গা লাকমাল, দিনেশ চান্ডিমাল।

এক কথায় লঙ্কান একাদশের নিয়মিত খেলোয়াড়দের একটা বহরই থাকছে না এই সিরিজে। অবশ্য লঙ্কান বোর্ড পাকিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে সভায় নিজেদের সন্তুষ্টির কথা জানালেও নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল থাকেন ওই দশ ক্রিকেটার। পরিবারের দুশ্চিন্তার কথার বিষয়টি জানান তারা।

লাহোরে সেই সন্ত্রাসী হামলার পর অবশ্য এর আগেও পাকিস্তান সফর করেছে শ্রীলঙ্কা। ২০১৭ সালে সিরিজের একটি টি-টোয়েন্টি তারা খেলেছিল পাকিস্তানে।

পাকিস্তানের লক্ষ্য ছিল নতুন এই সিরিজ দিয়ে শ্রীলঙ্কাকে নিরাপত্তার বিষয়ে আশ্বস্ত করেই ঘরের মাঠে তারা খেলবে টেস্ট ক্রিকেট। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনে খেলা হবে সেই ম্যাচ। এমন আশঙ্কায় ঘরের মাঠে সেই টেস্ট এখন হবে কি না তা নিয়ে সংশয় রয়েই গেলো।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত