আজ বৃহস্পতিবার, , ২১ জুন ২০১৮ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১০ জুন, ২০১৮ ০১:২৯

ছাতকের ইউপি চেয়ারম্যান সাহেলকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

ছাতক উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলকে সিলেটে নগরী পার্শবতী টুকেরবাজার এলাকা থেকে তুলে নেওয়ার অভিযোগে থানায় সাধারণ ডায়রি (জিডি) করা হয়েছে।

শনিবার বিকালে সিলেট মেট্রোপলিন পুলিশের জালালাবাদ থানায় তিনি নিজে ওই ডায়রি করেন।

জিডির বিষয়টি স্বীকার করে থানার ওসি (তদন্ত) আনোওয়ার জানিয়েছেন, তা তদন্ত করা হবে।
 
সাধারণ ডায়রিতে সাহেল উল্লেখ করেন, আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিক নিয়ে  তিনি গত ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। গত বুধবার (৬ জুন) রাত সাড়ে ১২ টায় ছাতকের গ্রামের বাড়ি থেকে সিলেট যাওয়ার পথে টুকেরবাজার এলাকায় একটি জিপ তার প্রাইভেট কারের গতিরেধ করে। কয়েকজন লোক আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে তাকে কার থেকে তুলে নিয়ে যায়। প্রথমে মোবাইল ফোনসেট ও মানিব্যাগ তারা তাদের দায়িত্বে নেয়। তুলে নেওয়ার পর  শহরতলীর শিবেরবাজার এলাকায় এবং পরবর্তীতে নগরীর কালিবাড়ি এলাকায় অবস্থান নেয় দুর্বৃত্তরা। ওই সময় তারা কডলেস ও মোবাইল ফোনে অজ্ঞাত লোকদের সাথে কথা বলে। আরও কয়েকজন লোক তাদের সাথে যুক্ত হয়। পরে তাকে গোয়াবাড়ি এলাকায় নিয়ে যায়। তুলে নেওয়ার কারণ জিজ্ঞেস করলে তার কোনো জাবাব দেয়নি বা খারাপ আচরণ করেনি বলেও জিডিতে উল্লেখ করেন সাহেল।

সালেহ আরও উল্লেখ করেন, ওইদিন রাত ১ টার দিকে ছিনিয়ে নেওয়া মোবাইল ও মানিব্যাগ ফেরত দেয় দুর্বৃত্তরা। পরে বাড়াবাড়ি না করেতে হুমকী দিয়ে তারা ওই এলাকায় তাকে রাস্তায় ফেলে যায়। বিষয়টি তিনি পরে আত্মীয়দের জানান।

সাহেল বলেন, আমি রাজনীতি করি। এলাকায় শত্রুর অভাব নেই। প্রথমে চাইছিলাম না জিডি করতে। কারা আমাকে তুলে নিয়েছিল আশা করি পুলিশ তদন্ত করে বের করবে। তিনি বলেন, টেকনাফে পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক হত্যাকান্ড থেকে নিজের মধ্যে একটা ভয় কাজ করছে। আর সেজন্য থানায় জিডি করেছি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত