আজ বুধবার, , ১৮ জুলাই ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৯ জুলাই, ২০১৮ ১৫:৩০

কামরান ও জুবায়েরের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে আরিফ

সিসিক নির্বাচন

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের বিরুদ্ধে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে ফের অভিযোগ জানিয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী।

একই সঙ্গে সিসিক নির্বাচনে স্বতন্ত্র হিসেবে অংশ নেয়া সিলেট মহানগর জামায়াতের আমির এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়েরের বিরুদ্ধেও নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ আনেন সদ্য সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

সোমবার (৯ জুলাই) দুপুরে সিলেটে নির্বাচন কমিশনের আঞ্চলিক কার্যালয়ে সিলেট সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আলিমুজ্জামানের কাছে এ অভিযোগ করেন সদ্য সাবেক এ মেয়র।

এসময় তিনি নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করা ছাড়াও বিভিন্ন সময়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ও তল্লাশির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র ছাড়া নেতাকর্মীদের বাসায় বাসায় পুলিশি অভিযানের নামে এ হয়রানী বন্ধের আহ্বান জানান।

এ ব্যাপারে আলিমুজ্জামান সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোরকে জানান, আরিফুল হক চৌধুরী মৌখিকভাবে বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও এহসানুল মাহবুব জুবায়েরের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ করে সিলেটে নির্বাচন কমিশনের আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে বেরিয়ে আসার পর আরিফুল হক সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আচরণবিধি অনুযায়ী আগামী ১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দের আগে নির্বাচনী প্রচারণার কোন সুযোগ নেই। তবুও এ আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে অন্যরা (বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও এহসানুল মাহবুব জুবায়ের) বারবার নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে বিভিন্ন ভাবে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন।

এদিকে কামরানের পক্ষে তার স্ত্রী আসমা কামরান ও ছেলে ডা. আরমান আহমদ শিপলুসহ সরকার দলের নেতাকর্মী নগরীতে প্রকাশ্যে লিফলেট বিতরণ করছেন।

তিনি আরো বলেন,  আমি এর আগেও একই বিষয় নিয়ে সিলেটে নির্বাচন কমিশনের আঞ্চলিক কার্যালয়ে সিলেট সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আলিমুজ্জামানের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছি। তবুও নির্বাচন কমিশন নীরব ভূমিকা পালন করছেন।

আরিফ বলেন, সিলেট একটি পুণ্যভূমি। এখানে এসব চলতে দেয়া যায় না। আর এখানে এসব করাটাও ঠিক না। আমি চাই সিসিক নির্বাচনে “লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড” তৈরি করা হোক। জনগণই নির্বাচিত করুক তাদের ভবিষ্যৎ জনপ্রতিনিধিকে।

এসময় আরিফুল হক চৌধুরীর সাথে ছিলেন, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম, হোসেন, সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদসহ আরো নেতৃবৃন্দ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত