শনিবার, , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৭ আগস্ট, ২০১৮ ২৩:২৬

হাই কোর্টে আটকে গেল ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদের গেজেট

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনের ৯নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের ফলাফলের গেজেট প্রকাশ না করতে নির্বাচন কমিশন, কমিশন সচিব ও রিটার্নিং কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন হাই কোর্ট।

মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের নেতৃত্বে গঠিত বেঞ্চের এ আদেশ। একইসঙ্গে এ ওয়ার্ডের নির্বাচন নিয়ে ৩১ জুলাই কাউন্সিলর প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাবুলের দেওয়া আবেদন সংক্রান্ত রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যক্রম কেনো বেআইনি ঘোষণা করা হবে না এ সংক্রান্ত রুল জারি করা হয়েছে।

সিসিক নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের পাঠানটুলা হাইস্কুল কেন্দ্র ও এতিমখানা স্কুল কেন্দ্রে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ এনে ৩১ জুলাই রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাবুল। ওই আবেদনে তিনি দু’টি কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানান। কিন্তু রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে আবেদনের কোনো সাড়া না পেয়ে সুপ্রিম কোর্টের হাই কোর্ট ডিভিশনে রিটপিটিশন (নং ১০৪০৫/২০১৮) করেন বাবুল। এতে নির্বাচন কমিশন, কমিশন সচিব ও নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা উপ নির্বাচন কমিশনার সিলেটকে বিবাদী করেন তিনি।

এই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাই কোর্টের ওই বেঞ্চ নজরুল ইসলাম বাবুলের আবেদনের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কাউন্সিলর পদে গেজেট প্রকাশ না করতে সিলেট সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে বাবুলের দেওয়া আবেদন সংক্রান্ত রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যক্রম কেনো বেআইনি ঘোষণা করা হবে না এ সংক্রান্ত রুলও জারি করেন।

বাবুলের পক্ষে রিট শুনানিতে অংশ নেওয়া সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, উচ্চ আদালতের গঠিত বেঞ্চ সিলেট সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ছাড়াও নির্বাচন কমিশন, কমিশন সচিব ও সিলেটের জেলা প্রশাসককে এ আদেশ কার্যকরের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মখলিসুর রহমান কামরানকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত