আজ বুধবার, , ২২ আগস্ট ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৮ আগস্ট, ২০১৮ ১৫:১৬

স্থগিত দুই কেন্দ্রে ‘মৃত ও প্রবাসী ভোটার’ ৩০১

সিলেটে সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগে স্থগিত হওয়া দু'টি কেন্দ্রে ৪হাজার ৭শত ৪৭জন ভোটারের মধ্যে ৩০১ জন ভোটার মারা গেছেন ও প্রবাসে আছেন।

সিসিক নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ও সিসিক নির্বাচনের ফলাফলের দিক থেকে এগিয়ে থাকা আরিফুল হক চৌধুরীর নির্বাচনী কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

আরিফের নির্বাচনী কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সিসিক নির্বাচনে স্থগিত হওয়া গাজী বোরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ২২২১ ভোটারের মধ্যে মারা গেছেন ৮০ জন ও প্রবাসে আছেন ৮০ জন ভোটার।

এছাড়া স্থগিত হওয়া আরেক কেন্দ্র হবিনন্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ২৫২৬ ভোটারের মধ্যে মারা গেছেন ৩৮ জন ও প্রবাসে আছেন ১০০ জন, চাকুরীজন্য অন্যত্র বদলী হয়েছেন ৩ জন ভোটার।

এদিকে সিসিক নির্বাচনে স্থগিত হওয়া গাজী বোরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও হবিনন্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টুলটিকর কেন্দ্রের পুনঃনির্বাচন ১১ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন।

তবে সিসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানিয়েছেন, মৃত ও প্রবাসী ভোটার সম্পর্কিত কোনো তথ্য তাঁর কাছে নেই।

গত ৩০ জুলাই সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৩৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩২টি কেন্দ্রের ফল ঘোষণা করেন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান। এতে বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের চেয়ে ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে আছেন।

ফল ঘোষণা কালে রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, ১৩২টি কেন্দ্রের ভোট গণনায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট ৯০ হাজার ৪৯৬। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের প্রাপ্ত ভোট ৮৫ হাজার ৮৭০।

এসময় তিনি জানান, ১৩২টি কেন্দ্রের ফল গণনায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর চেয়ে ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে আছেন। তবে স্থগিত দুই কেন্দ্রে ভোট সংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৭, যা প্রধান দুই প্রার্থীর প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধানের চেয়ে বেশি। তাই সেসময় কোনো প্রার্থীকে তিনি বিজয়ী ঘোষণা করেন নি। নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্থগিত দুই কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের পর বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে।

প্রসঙ্গত, গাজী বোরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা ২২২১, এর মধ্যে পুরুষ ভোটার- ১১৫৩ ও মহিলা ভোটার ১০৬৮ জন।

এ কেন্দ্রে এর মধ্যে মারা গেছেন, ৮০ জন ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আছেন ৮০ জন। ওয়ার্ড ছেড়ে চলে গেছেন অন্তত আরো ২৫-৩০জন।

অন্যদিকে হবিনন্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা ২৫২৬, এর মধ্যে পুরুষ ভোটার- ১১৫৩ ও মহিলা ভোটার ১০৬৮ জন।

এ ক্ষেন্দ্রে এর মধ্যে মারা গেছেন, ৩৮ জন ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আছেন ১০০ জন। ওয়ার্ড ছেড়ে চলে গেছেন অন্তত আরো ৩ জন।

সিলেট সিটি করপোরেশন মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে সোমবার ভোট দিয়েছেন ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৫৬ জন, যার মধ্যে বৈধ ভোট ছিল ১ লাখ ৯১ হাজার ২৮৯টি। বাতিল হয় ৭ হাজার ৩৬৭টি ভোট।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত