আজ সোমবার, , ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:০০

মোটরসাইকেল চালাতে মোবাইলে কথা, সিলেটে অ্যাকশনে পুলিশ

নগরীর চৌহাট্টা এলাকায় মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন এক তরুণ। চৌহাট্টা মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ তার মোটরসাইকেল থামায়। মোটরসাইকেল চালানোর সময় মোবাইলে কথা বলার দায়ে মামলা দেওয়া হয় ওই তরুণের বিরুদ্ধে।

মহানগর পুলিশের পরিদর্শক (ট্রাফিক) হাবিব হোসেন বলেন, মোবাইল ফোনে কথা বলে মোটর সাইকেলসহ যে কোনো যানবাহন চালানো ঝুঁকিপূর্ণ। এতে যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ ব্যাপারে সতর্ক করতেই গাড়ি চালানোর সময় চালক মোবাইলে ফোনে কথা বললে তার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হচ্ছে।
 
মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সিলেট নগরীতে বিভিন্ন যানবাহন ও চালকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধে ১৪৯ টি মামলা করা হয়। যার বেশিরভাগই মোটরসাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে।

এরমধ্যে ৯১টি মামলা চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকার কারণে।  গাড়ি চালানোর সময় মোবাইলে কথা বলা, হেলমেট না থাকা, সিটবেল্ট পরিধান না করায় ১৯ টি মামলা ও বৈধ কাগজপত্র না থাকার কারণে মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে ২০টি মামলা করা হয়।

বন্দরবাজার এলাকায় যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটিয়ে গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য ২১টি মামলা করে পুলিশ। এছাড়া গাড়ির ইন্সুরেন্স না থাকার জন্য ২টি এবং ফিটসেন সার্টিফিকেট না থাকার জন্য ১৫টি মামলা করা হয়।

উল্লেখ্য, ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সকলকে সচেতন করে তুলতে ও আইন মানতে সবাইকে উদ্ভুদ্ধ করতে গত শনিবার থেকে বিশেষ সচেতনতা কর্মসূচী শুরু করে সিলেট মহানগর পুলিশ। ওইদিন থেকেই সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে নগরীতে বিশেষ অভিযান চালাচ্ছে ট্রাফিক পুলিশ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত