শনিবার, , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:১৬

‘চেয়েছিলাম অধিকার, হয়ে গেলাম বহিষ্কার’

সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচী

সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে উপাচার্য, উপ-উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষের নিয়োগসহ যাবতীয় প্রশাসনিক জটিলতা নিরসন ও আন্দোলনে জড়িত থাকা দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবী জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে চারটায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে ঘন্টাব্যাপী এ অবস্থান কর্মসূচী পালন করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এসময় শিক্ষার্থীরা ‘নো ম্যুর সিলেকশন, উই ওয়ান্ট কোয়ালিফিকেশন’, ‘চেয়েছিলাম অধিকার, হয়ে গেলাম বহিষ্কার’ ইত্যাদি শ্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা।

অবিলম্বে বহিষ্কৃত দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করার আহবান জানিয়ে শিক্ষার্থীরা বলেন, গত দশ বছরে বিশ্ববিদ্যালয়কে কিছু মানুষ কুক্ষিগত করে রেখেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি, প্রক্টর, ট্রেজারার নিয়োগসহ যাবতীয় প্রশাসনিক জটিলতা নিরসনের আন্দোলনে জড়িত থাকায় দুই শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ক্যাম্পাসে রাজতন্ত্র কায়েম করে রেখেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের এসব সংকট নিরসনে চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপ কামনা করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের ফোন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হেনস্তা করছে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা।

অবস্থান কর্মসূচীতে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত শিক্ষার্থী উত্তম সরকার, ফাহিম আহমেদ চৌধুরী ছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রিকসানুল হক রনি, রাহাত, পল্টু কুমার রায় প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আন্দোলনরত ২ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের পরদিন ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারসহ ৫দফা দাবি না মানলে করলে বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু নির্দিষ্ট সময় অতিবাহিত হলেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় এমবিএ’র শিক্ষার্থীরা ক্লাস পরীক্ষা বর্জন এবং মশাল মিছিল করেছে।

দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলমান থাকবে বলে জানান আন্দোলনকারীরা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত