শনিবার, , ২০ এপ্রিল ২০১৯ ইং

জুড়ী প্রতিনিধি

২০ মার্চ, ২০১৯ ১৩:৪২

জুড়ীতে দেবরের কাছে ভাবীর হার

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোটে সোমবার (১৮ মার্চ) মৌলভীবাজারের জুড়ীতে চেয়ারম্যান পদে একই পরিবারের দুই প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও একজনের কাছে আরেকজন পরাজিত হয়েছেন বিপুল ভোটে।

জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে জিতেছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও হল্যান্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তারই ভাবী জুড়ী উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী গুলশান আরা মিলি। মিলি জুড়ী উপজেলার প্রথম চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এম এ মুহিত আসুকের সহধর্মিনী।

ভোট শেষে প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুককে বেসরকারি ভাবে জয়ী ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারি রিটার্নিং অফিসার অসীম চন্দ্র বনিক। আর গুলশান আরা মিলি হারেন বিপুল ভোটে।

জুড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক (স্বতন্ত্র) প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীকে পান ২৫ হাজার ১ ভোট। আর বর্তমান চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী গুলশান আরা মিলি পান ৫ হাজার ৮ শত ৪৬ ভোট।

এদিকে একই পরিবার থেকে চেয়ারম্যান পদের জন্য দুই প্রার্থী হওয়ায় উপজেলা জুড়ে আলোচনার সৃষ্টি হয়েছিলো। এ দুই প্রার্থী ছাড়াও জুড়ী উপজেলায় আরো একজন প্রার্থী ছিলেন তিনি হলেন, বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর রায় চৌধুরী মনি (স্বতন্ত্র) প্রার্থী হিসেবে ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২০ হাজার ৬৬ ভোট।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত