রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১২ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:২৮

এবার আকাশেই ফাটলো ইউএস বাংলা বিমানের চাকা, ঝুঁকি নিয়ে সিলেট

ফাটা চাকা নিয়ে ইউএস বাংলার একটি বিমান বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সিলেটের এমএজি ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছে।

ইউএস বাংলার অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের বিএস–১৩৭ নং বিমানটি যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে সিলেটে আসে রাত ৮টা ১০ মিনিটে। যাত্রীরা জানান, বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়ন করে বিমানটি। আকাশে ওড়ার মুহূর্তে বিমানের চাকা ফেটে যায়। এ অবস্থায় ঝুঁকি নিয়ে সিলেটের এমএজি ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছে বিমানটি।

যাত্রীরা আরও জানান, দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে ওই ফ্লাইট। চাকা ফেটে যাওয়ার খবরে মাঝ আকাশে রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ফেটে যাওয়া চাকা নিয়ে বিমানটির অবতরণ চরম ঝুঁকিপূর্ণ –এটা ভেবে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে যাত্রীদের মধ্যে। তবে শেষপর্যন্ত নিরাপদে অবতরণে সক্ষম হয় বিমানটি। তবে এটি নামার সময় অনেক ঝাঁকুনি দেয়।

ওই ফ্লাইটে যাত্রী ছিলেন সুনামগঞ্জ পুলিশের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। নাম প্রকাশ না করে তিনি বলেন, ‘যানবাহনের মতো বিমানগুলোর ফিটনেস চেক করা এখন একান্ত জরুরি। শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে ওড়ার আগেই বিকট শব্দে চাকা ফেটে যায় বিমানের। এরপরও ঝুঁকি নিয়ে সিলেট পর্যন্ত যাত্রী আনা হয়। সিলেটে অবতরণের আগে বিমানটি খুবই ঝুঁকি নিয়ে নামে। আমরা এসবের কারণ জানতে চাইলেও সংশ্লিষ্টদের কেউ কোনও সদুত্তর দিতে পারেনি। চাকা ফাটার খবরে মাঝ আকাশে বিমানে অনেক নারী ও শিশু ভয়ে কান্নাকাটি করেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘মন্ত্রণালয় থেকে এসব বিমান চেক করার জন্য একটি কমিটি করা খুবই জরুরি। তা না হলে যে কোনও সময় মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন সিলেট এমএজি ওসমানী বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক হাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, ‘শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ওড়ার মুহূর্তে বিমানটির চাকা ফেটে যায়। এ অবস্থায় বিমানটি যাত্রী নিয়ে সিলেটে আসে।’ চাকা ঠিক করার জন্য ইউএস বাংলার একটি ইঞ্জিনিয়ারিং দল সিলেটে আসছে বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে ইউএস বাংলার জনসংযোগ কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম বলেন, ‘সিলেটগামী ইউএস বাংলা বিমানটির ক্রটি নিয়ে প্রশ্ন উঠায় একটি ইঞ্জিনিয়ারিং দল সিলেটে যাচ্ছে। যতটুকু জেনেছি, সিলেট বিমানবন্দরে কিছু একটা সমস্যা হয়েছে। তবে সমস্যাটি মেজর নয়।’

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিমানের চাকায় সমস্যা হয়েছে। সে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য ইঞ্জিনিয়ারিং দল যাচ্ছে। এরপর বিমানটি নিয়ে তারা ঢাকায় চলে আসবে।’

এরআগে গত ৪ এপ্রিল আকাশে ঝড়ের কবলে পড়ে ঢাকা থেকে সিলেটমুখী ইউএস বাংলার একটি ফ্লাইট। ঝড়ের কবলে পড়ে বিমানে অস্বাভাবিক ঝাঁকুনিতে যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত