মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

২২ মে, ২০১৯ ১২:৫৮

প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে: শামীমা শাহরিয়ার

‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশ, ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ’ এই প্রতি প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলায় সরকারিভাবে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ মে) দুপুরে জামালগঞ্জ উপজেলা খাদ্য বিভাগের আয়োজনে খাদ্য গুদাম চত্বরে বোরো ধান-চাল সংগ্রহ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সুনামগঞ্জ-সিলেট সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট শামীমা আক্তার খানম এমপি (সংরক্ষিত আসন)। সভাপতিত্ব করেন জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াংকা পাল।

সহকারী খাদ্য পরিদর্শক হেলাল আহমদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার, জামালগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মাদ আলী, জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইফুল আলম, জামালগঞ্জ পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মনিসর রায় চৌধুরী, জামালগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আজিজুল হক, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাহবুবুল কবির।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. আব্দুর রউফ, খাদ্য পরিদর্শক শামছুল হুদা ফয়সাল, জামালগঞ্জ উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান মো. রজব আলী, বেহেলী ইউপি চেয়ারম্যান অসীম চন্দ্র তালুকদার, জেলা যুবলীগ সদস্য আবুল আজাদ, জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদুল হাসান তারেক, উপজেলা কৃষক লীগের আহবায়ক আলী আমজাদসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

প্রধান অতিথি সাংসদ শামীমা শাহরিয়ার বলেন, ‘হাওরপাড়ের প্রকৃত কৃষকরাই যেন সরকারি গুদামে বোরো ধান বিক্রির সুযোগ পায়। কৃষকেরা যেন সরাসরি গুদামে ধান বিক্রয় করতে পারে সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। কৃষকদের কোন দালাল চক্র অথবা কোন সিন্ডিকেটের খপ্পরে যেন পড়তে না হয় সেদিকে কঠোর মনিটরিং করতে হবে। যাতে প্রকৃত কৃষকরা সরকারের এই সুবিধা পায়। কোন দালাল চক্র যেন সাধারণ কৃষকের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে সেই দিকে নজর রাখার জন্য সাংবাদিকদের অনুরোধ করেন। এছাড়া কৃষকের ন্যায্য মূল্য আদায় করার জন্য তিনি চেষ্টা করবেন।

জানা যায়, বোরো ধান সংগ্রহের জন্য উপজেলা সংগ্রহ ও মনিটরিং কমিটি, ইউপি চেয়ারম্যানদের উপস্থিতিতে কৃষকদের কৃষি তালিকা হতে লটারির মাধ্যমে নির্বাচন করা হয়। উপজেলা কৃষি অফিসের মাধ্যমে মাঠ থেকে প্রকৃত কৃষকদের সংগ্রহীত তালিকা থেকে লটারির মাধ্যমে কৃষকদের তালিকা নির্বাচিত করেন জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াংকা পাল।

সরকার নির্ধারিত বোরো ধানের জন্য প্রতি মণ ১ হাজার ৪০ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। ফেনারবাঁক ইউপিতে ২৫০ মেট্রিক টন, জামালগঞ্জ সদর ইউপিতে ৮৭ মেট্রিক টন, ভীমখালী ইউপি ১১১ মেট্রিক টন, জামালগঞ্জ উত্তর ইউপিতে ৫৫ মেট্রিক টন, বেহেলী ইউপিতে ১৫০ মেট্রিক টন, সাচনা বাজার ইউপিতে ৬২ মেট্রিক টন ধান বরাদ্দ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বোরো মওসুমে জামালগঞ্জের ১১০০ কৃষকের কাছ থেকে ২৬ টাকা ধরে ৭১৫ মেট্রিক টন ধান ও ৩৬ টাকা ধরে ৪১ জন মিল মালিকদের কাছ থেকে ২ হাজার ২০৫ মেট্রিক ঢন চাল ক্রয় করবে সরকার। ধান-চাল ক্রয় অভিযান চলবে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত