বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

২৬ জুন, ২০১৯ ২৩:১৮

স্কলার্সহোম’র অসুস্থ শিক্ষার্থী ফাবিয়ানকে দেখতে হাসপাতালে হাফিজ মজুমদার

সিলেটের বেসরাকরী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্কলার্সহোম শিবগঞ্জ শাখার ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র অসুস্থ ফাবিয়ান চৌধুরী (১০) কে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছেন রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান ড. হাফিজ আহমদ মজুমদার।

তিনি মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকালে অসুস্থ ফাবিয়ানকে দেখতে ঢাকাস্থ গ্রীন লাইফ হাসপাতালে গিয়ে তার চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন। এসময় তিনি তার উন্নত চিকিৎসার আশ্বাস প্রদান করেন। এসময় অসুস্থ ফাবিয়ানের বাবা-মাসহ আত্মীয় স্বজন হাসপাতালে উপস্থিত ছিলেন।

হাফিজ আহমদ মজুমদার হাফিজ মজুমদার শিক্ষা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান। স্কলার্সহোম এই ট্রাস্টেরই প্রতিষ্ঠান।

হাফিজ মজুমদার শিক্ষা ট্রাস্টের সচিব লোকমান উদ্দিন চৌধুরী জানান, ফাবিয়ানের শারীরিক অবস্থা এখন অনেকটা উন্নতির দিকে। যতক্ষণ পর্যন্ত সে সুস্থ না হবে, ততদিন শিক্ষা ট্রাস্ট তার পাশে থাকবে। সেই সাথে সেদিনকার ঘটে যাওয়ার ঘটনার রহস্য উদঘাটনে ট্রাস্টের পক্ষ থেকে তৎপরতা চালানো হবে। অনাকাক্সিক্ষত এ ঘটনাকে পুঁজি করে অনেকে বিভিন্ন মন্তব্য করে যাচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, ফাবিয়ানকে ঢাকা নেওয়ার পর পরই আমি আমি নিজে ঢাকায় গিয়ে তার সাথে দেখা করি এবং চিকিৎসার খোঁজ খবর নেই। এসময় আমি ট্রাস্টের পক্ষ থেকে তার পরিবারের হাতে নগদ ৫০হাজার টাকা প্রদান করি। ইতোমধ্যে পপুলেশন কাউন্সিলের কান্ট্রি ডিরেক্টর ও হাফিজ মজুমদার শিক্ষা ট্রাস্টের ট্রাস্টি উবায়দুর রব পিএইচডি ফাবিয়ানের সাথে দেখা করে তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নিয়েছেন এবং তিনিও তার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে নগদ ১লক্ষ টাকা ফাবিয়ানের পরিবারের হাতে প্রদান করেছেন। এছাড়াও স্কলার্সহোম শিবগঞ্জ শাখার শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্তৃক ৪২হাজার টাকা উত্তোলন করে তা ফাবিয়ানের পরিবারের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে স্কলার্স হোম মেজরটিলা কলেজের অধ্যক্ষ নাজমুল বারী জালালীকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- স্কলার্স হোমের শিবগঞ্জ ক্যাম্পাসের অধ্যক্ষ আক্তারী বেগম ও স্কলার্স হোম সাপ্লাই ক্যাম্পাসের অধ্যক প্রাণবন্ধু বিশ্বাস।

তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ২৫ জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হলেও সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তদন্ত কমিটি অপর একজন ডাক্তার ও অভিভাবকের পরামর্শ গ্রহণ সাপেক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আরও দুইদিন সময় বর্ধিত করা হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৭ জুন স্কলার্সহোম'র শিবগঞ্জ ক্যাম্পাসে ফাবিয়ান আলম চৌধুরীকে হঠাৎ মাটিতে পড়ে থাকা অবস্থায় দেখতে পান প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষকরা। প্রাথমিক অবস্থায় ফাবিয়ান ছাদ থেকে পড়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হয়। যদিও স্কলার্সহোম কর্তৃপক্ষ ছাদ থেকে পড়ার সুযোগ নেই বলে দাবি করেছে।


এদিকে ফাবিয়ানের অসুস্থতার সুষ্ঠ তদন্ত ও তাঁর যথাযথ চিকিৎসার দাবিতে নগরীতে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন সংগঠন।

ফাবিয়ান বর্তমানে ঢাকার গ্রীন লাইফ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত