রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ ইং

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি

১৩ আগস্ট, ২০১৯ ২০:২৪

বিক্রি করতে না পেরে মাটিচাপা ৯০০ চামড়া

সংগৃহীত চামড়া বিক্রি করতে না পেরে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ৯০০ কোরবানির পশুর চামড়া মাটিতে পুঁতে দিয়েছে একটি মাদ্রাসার সংশ্লিষ্টরা।

মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর হোসাইনিয়া হাফিজিয়া আরাবিয়া দারুল হাদিস মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে ওই চামড়াগুলো মাটিচাপা দেওয়া হয়।

মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়রা জানান, প্রতিবছরের মতো এবারও ঈদুল আজহার কোরবানির পশুর চামড়া এলাকার স্থান মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সংগ্রহ করেন। চামড়া বিক্রির অর্থ দিয়ে মাদ্রাসার খরচের একটা অংশ সঙ্কুলান হতো। কিন্তু এবার চামড়া সংগ্রহের পর বিক্রি করতে না পেরে মাটিতে পুঁতে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন। এসময় সংশ্লিষ্টরা ক্ষোভ প্রকাশও করেন।

মাদ্রাসার মুহতামিম হাফেজ মাওলানা সৈয়দ ফখরুল ইসলাম বলেন, অন্যান্য বছরের ন্যায় এবারও আমাদের মাদ্রাসার পক্ষ থেকে বাড়ি-বাড়ি গিয়ে কোরবানিদাতাদের নিকট থেকে প্রায় ৯০০ চামড়া সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে গরুর চামড়া রয়েছে ৮০০ ও ছাগলের ১০০ পিস। চামড়া ক্রয় করতে কেউ আসেনি। বাধ্য হয়ে মাটিতে পুঁতে দেওয়া হয়েছে চামড়াগুলো।

চামড়াগুলো সংগ্রহ এবং চামড়ায় লবণ ব্যবহারের ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে বলেও জানান তিনি।

মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আর্থিকভাবে এখন স্বাবলম্বী উল্লেখ করে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম বলেছেন, ‘সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য তারা এ ধরনের কাজ করেছে।’

আপনার মন্তব্য

আলোচিত