সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০১:৫৪

বিশ্বনাথে দু’পক্ষের উত্তেজনার প্রেক্ষিতে মসজিদ নির্মাণ বন্ধ করে দিলো পুলিশ

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার পুরানগাঁও গাছ তলায় একটি নতুন মসজিদ নির্মাণ নিয়ে দু’পক্ষে উত্তেজনা বিরাজ করছে। গ্রামের জয়নাল আবেদীন কুদ্দুসের লিখিত অভিযোগে রোববার দুপুরে এসআই দিদার আলম ঘটনাস্থলে গিয়ে মসজিদ নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।

দু’পক্ষের মধ্যে পঞ্জায়েত পক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন রামপাশা ইউনিয়নের পুরানগাঁওয়ের বাসিন্দা ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রবীণ মুরব্বী আশ্রব আলী। আর প্রতিপক্ষ জয়নাল আবেদীন কুদ্দুস একই গ্রামের মৃত তছর আলীর ছেলে। মসজিদ নির্মাণকাজ বন্ধ করায় এলাকাবাসীর মধ্যে উত্তেজনা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। যেকোন সময় সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

তবে, থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেছেন, একটি পক্ষকে না জানিয়ে মসজিদ নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাওয়ায় অন্য পক্ষ লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। মসজিদকে ঘিরে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে জন্য নির্মাণ কাজ আপাদত বন্ধ রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
 
জানাগেছে, পুরানগাঁও গাছতলা এলাকায় প্রায় ৭০টির বেশি মুসলিম পরিবারের বসবাস। নামাজ আদায় করতে হলে তাদেরকে প্রায় দেড় কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হয়। সেজন্য দীর্ঘদিন থেকে ‘নকিখালী-দশপাইকা সড়কের’ পুরানগাও গ্রামের গাছতলা নামক স্থানে ২১ শতাংশ জায়গায় মসজিদ নির্মাণের উদ্যোগ নেন। সর্বশেষ  গত শুক্রবার জুম্মার নামাজে পুরানগাঁও জামে মসজিদে ওই জায়গায় নতুন মসজিদ নির্মাণের কথা উত্তাপন করা হলে গ্রামের পঞ্চায়েতগণ সমর্থন জানান। এরই প্রেক্ষিতে রোববার বাঁশ ও টিন দিয়ে মসজিদের একটি ঘর নির্মাণকাজ শুরু করেন মুসল্লিরা। কিন্তু নির্মাণ কাজ শুরু করতে না করতেই প্রতিপক্ষ জয়নাল আবেদীন কুদ্দুস মসজিদ নির্মাণে আপত্তি জানিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। আর ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে রোববার দুপুর ১২টায় বিশ্বনাথ থানার এসআই দিদার আলম সেখানে গিয়ে মসজিদ নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। এরপর থেকেই এলাকাবাসীর মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পঞ্জায়েত পক্ষের মুরব্বি আশ্রব আলী, রতন মিয়া, চমক আলী, আব্দুল মালিক, মুতলিব আলী, জহুর আলী, মাহমদ আলী, আশিক আলী, রফিক আলী, আলতাব আলী, মুক্তার আলী, আব্দুল নুর, সাবুল মিয়া, আতাবুল মিয়া, কয়ছর আহমদ, আশদ আলী, আব্দুর নুর, আব্দুল হক, আনর মিয়াসহ শতাদিক মুসল্লীরা বলেন, পুরানগাঁও গ্রামে একটি বড় জামে মসজিদ অনেক দূরে হওয়ায় গাছতলায় মসজিদের নামের জায়গায় নতুন একটি মসজিদ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

এবিষয়ে অভিযাগকারী জয়নাল আবেদীন কুদ্দুস জানান, তার লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্মাণকাজ বন্ধ করা হয়েছে, এবং ওই বিষয়টি নিয়ে তিনি থানায় বৈঠকে রয়েছেন। যে কারণে বিস্তারিত জনাতে পারছেন না। 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত