রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৫:১৭

‘জনগণের ভোটাধিকারের আন্দোলনের জন্যই খালেদা জিয়া কারান্তরীন’

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির মানববন্ধনে বক্তারা

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেছেন, কোন অপরাধ নয়, গণতন্ত্রকামী জনতার ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার কারণেই বেগম খালেদা জিয়া আজ কারান্তরীণ। বিচার বিভাগ থেকে শুরু করে রাষ্ট্রযন্ত্রের সকল স্তরে নগ্ন দলীয়করণের কারণে ভিন্নমতের রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা আজ ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া ফরমায়েশি সাজা ও ষড়যন্ত্রমুলক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন।

সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে জেলার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল ও মহানগর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম সিদ্দিকীর যৌথ পরিচালনায় নগরীর সুরমা মার্কেট পয়েন্টে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে জেলা ও মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের সকল পর্যায়ের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, ফ্যাসিস্ট সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ রেখেছে। এরপরও পত্রিকার পাতা খুললেই দুর্নীতির আর লুটপাটের মহোৎসবের সংবাদ চোখে পড়ে। বালিশ দুর্নীতি, পর্দা দুর্নীতির সংবাদ দেখে জাতি লজ্জিত হলেও, মধ্যরাতে ভোট চুরি করে ক্ষমতা দখল করা আওয়ামী ফ্যাসিবাদী সরকারের ন্যূনতম লজ্জা হচ্ছে না। শেয়ার বাজার থেকে হাজার কোটি টাকা লুটপাট করা হচ্ছে এরও কোন বিচার হচ্ছে না। অথচ ১/১১ এর মঈন-ফখর উদ্দিন সরকারের আমলে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলার ফরমায়েশি রায়ে বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।

তারা আরও বলেন, শীর্ষ সন্ত্রাসী থেকে শুরু করে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের মুক্তি হলেও অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুক্তি দেয়া হচ্ছে না। সরকারের এমন প্রতিহিংসামূলক কর্মকাণ্ড মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। আর কোন টালবাহানা না করে অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিন। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া ফরমায়েশি সাজা বাতিল করুন ও ষড়যন্ত্রমুলক সকল মামলা প্রত্যাহার করুন। সিলেটের এম ইলিয়াস আলী, ছাত্রদল নেতা ইফতেখার আহমদ দিনার, জুনেদ আহমদ ও গাড়িচালক আনসার আলীসহ গুমকৃত সকল নেতাকর্মীদের অক্ষত অবস্থায় পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিন।

মহানগর বিএনপির স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা. আশরাফ আলীর পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সূচিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সহসভাপতি এডভোকেট আশিক উদ্দিন আশুক, আব্দুল মান্নান, মহানগর সহসভাপতি হুমায়ুন কবির শাহীন, জেলা সহসভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদার, মহানগর সহসভাপতি কাউন্সিলার ফরহাদ চৌধুরী শামীম, জেলা সহসভাপতি আশিক উদ্দিন চৌধুরী, একেএম তারেক কালাম, হাজী শাহাব উদ্দিন, জালাল উদ্দিন চেয়ারম্যান, মহানগর সহসভাপতি ফাত্তাহ বকশী, সুদীপ রঞ্জন সেন বাপ্পু, জেলা সহসভাপতি ফখরুল ইসলাম ফারুক, মহানগর সহসভাপতি আমীর হোসেন, জেলা উপদেষ্টা মাজহারুল ইসলাম ডালিম, মহানগর উপদেষ্টা সৈয়দ বাবুল ও সরফরাজ আহমদ চৌধুরী, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী ও হুমায়ুন আহমদ মাসুক, জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মঈনুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ খান জামাল, মহানগর সাংগঠনিক মুকুল আহমদ মোর্শেদ, জেলা সাংগঠনিক আবুল কাশেম, মহানগর সাংগঠনিক মাহবুব চৌধুরী, জেলা সাংগঠনিক শামীম আহমদ, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি নেতা রুপা রাজা চৌধুরী, মহানগর দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ রেজাউল করিম আলো, জেলা দপ্তর সম্পাদক এডভোকেট মো. ফখরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক নিজাম উদ্দিন জায়গীরদার, মহানগর প্রচার সম্পাদক শামীম মজুমদার, জেলা শ্রম সম্পাদক সুরমান আলী, মহানগর শ্রম সম্পাদক ইউনুস মিয়া, স্বেচ্ছাসেবক সম্পাদক হাবিব আহমদ চৌধুরী শিলু, জেলা মহিলা দলের সভাপতি সালেহা কবির শেপি, জেলা বিএনপির যোগাযোগ সম্পাদক আরিফ ইকবাল নেহাল, স্বাস্থ্য সম্পাদক আ.ফ.ম কামাল, মহানগর তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সুহাদ রব চৌধুরী, জেলা সমবায় সম্পাদক লিলু মিয়া চেয়ারম্যান, ধর্ম সম্পাদক আল মামুন খান, মহানগর আপ্যায়ন সম্পাদক আফজাল উদ্দিন, পল্লী উন্নয়ন সম্পাদক আব্দুল জব্বার তুতু, জেলা মৎস্য সম্পাদক আলী আকবর, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সিলেট বিভাগীয় সহ-সভাপতি মাহবুবুল হক চৌধুরী (ভিপি মাহবুব), জেলা সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রহমান ফয়েজ ও হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ-কোষাধ্যক্ষ এডভোকেট আহমদ রেজা, মহানগর সহ-দপ্তর সম্পাদক লোকমান আহমদ, জেলা সহ-দপ্তর সম্পাদক এম. এ মালেক ও দিদার ইবনে তাহের লস্কর, বিএনপি নেতা আমিন উদ্দিন আহমদ, আব্দুল মালেক, আব্দুল লতিফ খান, আব্দুল ওয়াহিদ সুহেল, ডা. আব্দুল হক, কয়েস আহমদ সাগর, আজির উদ্দিন, আজাদ মেম্বার, ফয়েজুর রহমান ফয়েজ, ইসলাম উদ্দিন, শফিকুর রহমান টুটুল, আব্দুর রহমান, মাসুক এলাহী, এম. মখলিছ খান, কামরুজ্জামান দীপু, হাসান মঈনুদ্দিন আহমদ, আলী হায়দার মজনু, আব্দুর রহিম মল্লিক, দিলোয়ার হোসেন রানা, বাবর আহমদ, ফরিদ আহমদ, দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, সামছুল ইসলাম ফয়সল, সাব্বির আহমদ, লিটন আহমদ, ময়নুল হক স্বাধীন, মাহবুব আহমদ চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল আহাদ, আব্দুল খালিক, খোকন ইসলাম, সাহেদ আহমদ, নুরুল ইসলাম, এহছানুল করিম মিশু, দিপু আহমদ, হাবিবুর রহমান হাবিব, জাকির হোসেন, ছাত্রদল নেতা জহুরুল ইসলাম রাসেল, সুহেল রানা, তানভীর আহমদ চৌধুরী, ফাহিম রহমান মৌসুম ও আলী আকবর রাজন প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত