বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:০০

সাদাপাথরে বেড়াতে এসে লাশ হলেন ২ পর্যটক

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জের সাদাপাথর পর্যটন কেন্দ্রে বেড়াতে এসে পানিতে তলিয়ে নিহত হয়েছেন ২ পর্যটক। নিহত দুজনের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ৩টায় ধলাই নদে নিখোঁজ হন ইমনুর রহমান (২৫)।  বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ভোলাগঞ্জের ধলাই নদ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

অপরদিকে শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) ভোলাগঞ্জের সাদাপাথর পর্যটন কেন্দ্রে ধলাই নদীতে গোসল করতে নেমে ঢেউয়ের তোড়ে তলিয়ে যান ঢাকার হাফিজ বিন হারুনুর রশিদ (১৮)শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভোলাগঞ্জের ধলাই নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) ঢাকার কামরাঙ্গীচর থেকে ১৪৪ জন শিক্ষার্থী বেড়াতে আসে সিলেটে। তাদের মধ্যে ছিলেন হাফিজও। বিকালে তারা সবাই মিলে ভোলাগঞ্জের সাদাপাথর পর্যটন কেন্দ্রে যান। সেখানে ধলাই নদীতে গোসল করতে নেমে ঢেউয়ের তোড়ে তলিয়ে যান হাফিজ। সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ায় অনেক খুঁজাখুঁজি করেও ওই সময় তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরে শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল ধলাই নদী তল্লাশি চালিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে। হাফিজ বিন হারুনুর রশিদ ঢাকার কামরাঙ্গীচরের হারুনুর রশিদের ছেলে। তিনি ঢাকার মারকাজুল কোরআন মাদ্রাসার শিক্ষার্থী।

এদিকে শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) ঢাকা থেকে সিলেটের সাদাপাথরে বেড়াতে আসেন ইমনুর রহমানসহ (২৫) কয়েকজন। বিকেল ৩টার দিকে পানির স্রোতে তলিয়ে নিখোঁজ হন তিনি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ধলাই নদ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। ইমনুর রহমান ঢাকায় বসবাসরত সালিকুর রহমানের পুত্র।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ২ জন পর্যটকের মরদেহ তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত