সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯ ইং

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি

০৮ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:৪৯

জকিগঞ্জে হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে প্রতিমা নিরঞ্জন

শেষবারের মতো তেল-সিঁদুর পরিয়ে, চোখের জলে দুর্গতিনাশিনী মা দেবী দুর্গাকে বিদায় জানিয়েছে জকিগঞ্জের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকেলে তিনটা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন পূজামণ্ডপ শোভাযাত্রাসহ জকিগঞ্জ কাস্টম ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন করে ভক্তরা।

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের এ উৎসবকে ঘিরে মেতে ওঠে সীমান্ত ঘেঁষা এ নদীপাড়ের নানা ধর্ম-বর্ণের হাজারো মানুষ। ঢাকঢোল, কাসর, করতাল, মন্দিরা, বাঁশি এবং শঙ্খ’র ধ্বনিতে মুখরিত হয় গোটা এলাকা। দেবী দুর্গার বিদায়কে কেন্দ্র করে সীমান্ত এলাকা জকিগঞ্জের কুশিয়ারা নদীর ভারত ও বাংলার দুই তীরের বসেছিলো মানুষের মিলনমেলা। জড়ো হন হাজারো পূজারী ভক্ত অনুরাগী, দর্শনার্থী ও শুভার্থীরা। হিন্দু, মুসলিমের পদচারণয় মুখরিত হয়ে উঠে জকিগঞ্জ শহরের কাষ্টমঘাট ও ভারতের কাষ্টমঘাটস্থ অখণ্ড মণ্ডলী মন্দিরের প্রাঙ্গণ।

মর্তলোক থেকে কৈলাসে দেবীকে বিদায় জানাতে নেচে গেয়ে মাতোয়ারা হন ভক্তরা। সেজেছিলেন উৎসবের বর্ণিল রঙে। কুশিয়ারা নদীর উভয় পারের প্রতিমা বিসর্জনে এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা হয়। দীর্ঘদিন ধরে এমন ভাবেই বাঙ্গালী হিন্দুদের এ উৎসব ভারত ও বাংলাদেশের কুশিয়ারা নদীর দুই তীর চলে আসছে।

পুজার্থীদের শুভেচ্ছা জানাতে আসেন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দদের পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ কর্মকর্তাসহ জকিগঞ্জের সর্বস্থরের মানুষ। প্রতিমা নিরঞ্জন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করতে ও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শহরের বিভিন্ন স্থানে ও কাস্টমসে পুলিশ, বিজিবি, ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল, আনসার সদস্যরা ছিল সর্তক অবস্থায়। লক্ষ করা গেছে ভারতের করিমগঞ্জেও ভারতীয় বাহিনী সর্তক ছিলো।

কাস্টমঘাটে প্রতিমা বিসর্জন অনুষ্ঠান মঞ্চে উপজেলা পূজা পরিষদের সভাপতি সঞ্জয় চন্দ্র নাথের সভাপতিত্বে ও পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় বিশ্বাসের সঞ্চালনায় ভক্ত অনুরাগী, দর্শনার্থী ও শুভার্থীদের শারদীয় শুভেচ্ছা জানাতে আসেন সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন পিপিএম, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হাজী লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, জকিগঞ্জ পুলিশ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়, জকিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী খলিল উদ্দিন, জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাকিম হায়দর, জকিগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল খায়ের চৌধুরী, জেলা পূজা পরিষদের শুভ্রকান্তি চন্দন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আহবায়ক বিভাকর দেশমূখ্যসহ রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। তাঁরা ধর্মীয় সম্প্রীতির বন্ধনকে অটুট রাখতে সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত