শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ইং

বানিয়াচং প্রতিনিধি

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৬:৫৪

বানিয়াচংয়ে নদীর তীর দখল করে শ্রমিক লীগ নেতার দোকান নির্মাণ

হবিগঞ্জের বানিয়াচং ৬নং কাগাপাশা ইউনিয়নের কাগাপাশা বাজারের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া কুশিয়ারা নদীর পাড়ের সরকারি ভূমি দখল করে দোকান কোটা নির্মাণের অভিযোগ ওঠেছে। এই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য ও শ্রমিক লীগের সাবেক আহবায়ক সায়েদ মিয়া এবং তার সহযোগী ইউপি যুবলীগ সদস্য আবু বকর এই দো্কান নির্মাণ করেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

প্রায় ৬ বছর ধরে নদীর তীর দখল করে দোকান নির্মাণ করে তা ভাড়া দিয়ে রেখেছন তারা।

জানা যায়, কাগাপাশা বাজার সংলগ্ন জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের দক্ষিণ পাশে বয়ে যাওয়া কুশিয়ারা নদীর পার্শ্ববর্তী কয়েকটি গ্রামের মানুষ নৌকা যোগে এই জায়গায় এসে উঠেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে সায়েদ মিয়া ও আবুবকর মিলে খেয়াঘাটে তথা নদীর পাড়ে দোকান কোটা বানিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছেন। বিষয়টি নিয়ে বেশ কিছু দিন পূর্বে ওই এলাকার এক প্রবাসী আদালতে সায়েদ ও আবুবকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলে আদালত তাদের সরকারি ওই ভূমিতে ভবিষ্যতে না যাওয়ার জন্য মুছলেকা রেখে ছেড়ে দেন। পরবর্তীতে দুই নেতা আগের মতোই তাদের পছন্দের লোকদের দোকান কোটা বানিয়ে দিয়ে মাসের পর মাস ভাড়া আদায় করে নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে শ্রমিক লীগ নেতা সায়েদ মিয়ার সাথে কথা হলে তিনি জানান- দোকান ঘরগুলো বানানো হয়েছে মালিকানাধীন জায়গাতে। এটা কোনো সরকারি জায়গা না।

বানিয়াচং ৬নং কাগাপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এরশাদ আলী জানান- আমি কোনো কিছু জানি না। আমাকে কেউ বলেওনি। এখন আপনার কাছ থেকে শুনলাম। তারপরও বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখবো।


আপনার মন্তব্য

আলোচিত