শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:৩৫

প্রকাশিত সংবাদে গোয়াইনঘাট থানার ওসি’র প্রতিবাদ

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম-এ প্রকাশিত 'সিলেটে পুলিশ পরিদর্শক-ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলা' শীর্ষক প্রতিবেদনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আহাদ। প্রতিবাদপত্রে তিনি আদালতের আদেশ বিকৃতভাবে উপস্থাপনের অভিযোগ করেন।

মঙ্গলবার সিলেটটুডে'র ই-মেইলে প্রেরিত প্রতিবাদপত্রে আব্দুল আহাদ উল্লেখ করেন, গত ১৩ সেপ্টেম্বর সিলেট স্পেশাল জজ আদালতে আইনজীবী মইনুল হক বুলবুল আমিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে একটি কাল্পনিক ঘটনা সাজিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। এ অভিযোগে আমাকে ৮নং বিবাদী করা হয়। আদালত এ অভিযোগের দীর্ঘ শুনানিকালে বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। জবানবন্দিতে বাদী জানান যে, অভিযোগটি তিনি সিলেট এর দুদক কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে দায়ের করিয়াছিলেন। কিন্তু দুদক কর্তৃপক্ষ অভিযোগটি আমলে না নিয়ে আদালতে অভিযোগ পেশ করার পরামর্শ দেন। আদালত বাদীর এই বক্তব্যের সঠিক তা যাচাইয়ের জন্য আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দুদককে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ প্রদান করেন।

আব্দুল আহাদ প্রতিবাদপত্রে উল্লেখ করেন, আদালতের আদেশ বিকৃত করে উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাদীপক্ষসহ সিন্ডিকেট চক্রটি গণমাধ্যমকে বিভ্রান্ত করে। ফলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে এই মিথ্যা সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

আব্দুল আহাদ আরও উল্লেখ করেন, আমি আমার চাকুরী জীবনে অত্যন্ত দক্ষতা, সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে আমার কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ একাধিকবার জেলার শ্রেষ্ঠ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ হইতে পুরস্কৃত হয়েছি। ইতোপূর্বে আমি কানাইঘাট থানায় কর্মরত অবস্থায়ও অপরাধ দমনে সচেষ্ট থাকায় অপরাধ জগতের আন্ডারগ্রাউন্ডে থাকা গডফাদার সিন্ডিকেট চক্র গোয়াইনঘাট থানা এলাকার চক্রের সাথে একাত্ম হয়ে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপ-প্রচারসহ হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত