মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ইং

দিরাই প্রতিনিধি

৩১ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:০৫

দিরাইয়ে অগ্নিকাণ্ডে ৩টি বসতঘর পুড়ে ছাই

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামে অগ্নিকাণ্ডে ৩টি বসতঘরের সকল মালামাল পুড়ে গেছে। এতে প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করছেন অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যাওয়া ঘরের মালিকগন।। বুধবার (৩০ অক্টোবর) মধ্য রাতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভাটিপাড়ার গ্রামের খলাহাটির মিয়াধন মিয়ার রান্না ঘরের চুলায় থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে যায়। বসতঘরে ঘুমন্ত নারী-পুরুষ বের হয়ে আসলেও আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। একপর্যায়ে আগুন পাশের দুটি ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। পরে মসজিদের মাইকে আগুন নিভানোর জন্য আহ্বান জানালে গ্রামের লোকজন এসে আগুন নিভানোর চেষ্টা করেন। তবে এত শেষরক্ষা করতে পারেননি কেউ। ৩টি বসতঘরের সকল আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

কান্না জড়িত কণ্ঠে ক্ষতিগ্রস্ত সাহেনুর মিয়া বলেন, দু'দিন আগে আমি ব্যবসার জন্য ব্র্যাক থেকে ৭০ হাজার টাকা ও আমার ছোট ভাই জাহেনুর ৩০ হাজার টাকা লোন তুলি, ওই টাকাসহ ঘরের যাবতীয় আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আমি আগামীকাল ব্যবসার মালপত্র কিনতে লেপসিয়া বাজারে যাওয়ার জন্য ৭০ হাজার টাকা লোন তুলে ঘরে ট্রাংকে রেখেছিলাম কিন্তু একটি টাকা ঘর থেকে আনতে পারিনি। ছেলে-মেয়েদের  নিয়ে কোনরকম ঘর থেকে বের এসেছি।

ক্ষতিগ্রস্ত মিয়াধন মিয়া বলেন, আমাদের ৩টি পরিবারের যা কিছু ছিল সব হারিয়ে এখন নিঃস্ব হয়ে গেছি। আমাদের মাথা গুজার ঠাঁই নেই। এতবড় দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে দেখতে কেউ আসেনননি।

তবে স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান চৌধুরী সিরাজ ও ৪ নং ওয়ার্ড মেম্বার রাছিন আহমেদ চৌধুরী পক্ষ থেকে শাড়ি লুঙ্গি ও ৩ বস্তা চাউল দেওয়া হয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকজনদের। এলাকাবাসীরা জানান এই ক্ষতি পুষিয়ে উঠা তাদের পক্ষে সম্ভব নয় সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সাহায্য ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করলে নিঃস্ব পরিবার কোন মতে বেঁচে থাকতে পারবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত