বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ ইং

তাহিরপুর প্রতিনিধি

০৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০৯

তাহিরপুরে চিকিৎসককে মারধর: হাসপাতাল পরিদর্শনে ইউপি চেয়ারম্যান

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসকদের উপর হামলার ঘটনায় আহতদের দেখতে ও হাসপাতাল পরিদর্শনে বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালে আসনে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল।

এসময় তিনি বলেন, হাসপাতালে কোন অনুপ্রবেশকারী, সন্ত্রাসীরা সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাবে তা কোন ভাবেই সহ্য করা হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে শুদ্ধি অভিযান চালিয়েছে এই সব সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধেও অভিযান চালানো হবে। সে যত বড় ক্ষমতাশালী হউক ছাড় দেওয়া হবে না।

গত মঙ্গলবার রাত ১০টায় ভর্তিকৃত রোগীর চিকিৎসাকে কেন্দ্র করে প্রথমে নৈশপ্রহরী নাঈম চৌধুরীকে মারধর ও ডাক্তার ফয়েজ আহমেদ নূরীকেও ধারালো চাকু দিয়ে যারা আঘাত করেছে তাদের দ্রুত আটক করে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান তিনি।

এসময় তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মির্জা রিয়াদ হাসান, মৃত্যুঞ্জয় রায়, ডা. সুমন বর্মণ, মহি উদ্দিন বিপ্লব, ডা. বেলায়েত হোসেন রুমি, ডা. সুমন বর্মণ, ছাত্রলীগ সভাপতি আবুল বাসার, সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সাজিদুর রহমান, মিজানুর রহমান, আজাদুর রহমান, টিটু বর্মণ, তাপস চন্দ্র বর্মণ, সম্রাট রায়, রুবেলসহ কর্মকর্তা কর্মচারীগন উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য,গত মঙ্গলবার রাত ১০টায় ভর্তিকৃত রোগীর চিকিৎসাকে কেন্দ্র করে প্রথমে নৈশপ্রহরী নাঈম চৌধুরীকে মারধর করে পরবর্তীতে ডাক্তার ফয়েজ আহমেদ নূরীকেও ধারালো চাকু দিয়ে আঘাত করে।

এর প্রতিবাদে বুধবার (৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে ঘটনায় সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবীতে মানববন্ধন ও সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বহির্বিভাগে কর্মবিরতি পালন করে। এ ঘটনায় এখনও কেউ আটক হয়নি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত