রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ইং

দিরাই প্রতিনিধি

০৯ নভেম্বর, ২০১৯ ২০:২৩

সারা দেশে দিরাইর রাজনীতির সুনাম রয়েছে : মতিউর

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য মতিউর রহমান বলেছেন, সম্প্রীতি ও ত্যাগের রাজনীতিতে আমাদের দিরাইয়ের সুনাম সারা দেশে সমাধৃত। এখানে অনেক প্রতিথযশা রাজনীতিবিদদের জন্ম হয়েছে, তারা তাদের রাজনৈতিক দর্শন ও প্রতিভা দিয়ে সারা দেশে আমাদের সুনাম ছড়িয়ে দিয়েছেন। আপনারা তাদের পথধরে রাজনীতি করে যাবেন, দিরাইয়ের অনেক নেতা জেলা এবং জাতীয় পর্যায়ে নেতৃত্ব দিয়ে গেছেন, এখনও আমরা তাদের স্মৃতি ধরে রেখে পথ চলছি।

প্রয়াত জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের প্রশংসা করে মতিউর রহমান বলেন তিনি ছিলেন, আমার ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহচর, দলের যে কোনো সংকটময় মুহূর্তে আমরা এক সাথে বসে আলাপ আলোচনা করে সমস্যার সমাধান করেছি, তার অনুপস্থিতিতেও আমরা এ ধারা অব্যাহত রাখতে চাই,আমরা ভোগের নয় ত্যাগের রাজনীতিতে বিশ্বাসী।

তিনি আরও বলেন, যখন জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের দিকে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে সে সময়ে আগামী দিরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ, আমরা সবাই মিলে  একটি গ্রহণ যোগ্য কমিটি আনতে চাই।

উপজেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির বিষয়ে তিনি বলেন, উপজেলা নেতৃবৃন্দ যে কমিটি আমাদের কাছে পাঠিয়েছেন আরও কয়েকজনের নাম কো-আপ্ট করে দু’এক দিনের মধ্যেই কমিটি ঘোষণা করা হবে।

হাতাহাতির ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, আমরা এমনটা আশা করিনি, আগামীতে এমন হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শনিবার (৯ নভেম্বর) বেলা ৩ টায় শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আছাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক অভিরাম তালুকদার এবং আইন বিষয়ক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম খোকনের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট শফিকুল আলম, অ্যাডভোকেট অবনী মোহন দাস, রেজাউল করিম শামীম, সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এনামুল কবির ইমন।

সভার শুরুতে জেলা নেতৃবৃন্দকে বরণ করতে গিয়ে দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে, পরে নেতৃবৃন্দের মধ্যস্থতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ রায়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত