মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪৮

বিশ্বনাথে বিএনপির দুই গ্রুপে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, আটক ৫

বিএনপির সভাপতিকে লাঞ্ছিত করার জের

দশদিন আগে সিলেটের বিশ্বনাথ বিএনপির সভাপতি ও সাবেক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিনকে ডেকে নিয়ে লাঞ্ছিত করেন জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরী। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ (১৭ নভেম্বর) রোববার রাত ৮টায় সুহেল চৌধুরী ও জালাল উদ্দিন গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় সুহেল আহমদ চৌধুরী গ্রুপের বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের ৫ জনকে আটক করেছে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ। আটককৃতদের মধ্যে রয়েছেন উপজেলা বিএনপি নেতা জয়নাল আবেদীন (৪৪), বাবুল মিয়া (৪৬), জুনাব আলী (৪০), উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা সাজ্জাদ আলী শিপলু (৩০) এবং উপজেলা ছাত্রদল নেতা ইমরান হোসেন টিপু (২৫)।

জানা গেছে, গত ৬ নভেম্বর বুধবার রাতে বিশ্বনাথ বিএনপির সভাপতি জালাল উদ্দিনকে ডেকে নিয়ে লাঞ্ছিত করেন সুহেল আহমদ চৌধুরী। এ ঘটনার পর থেকে দুই গ্রুপে টান উত্তেজনা বিরাজ করে। এ নিয়ে বিশ্বনাথ সরকারি ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি রাসেল আহমদ সুহেল চৌধুরীর বিপক্ষে তার ফেসবুকে কটূক্তি করেন। এর জের ধরে রোববার সন্ধ্যা ৬টারদিকে বিশ্বনাথ পুরান বাজারে রাসেল আহমদের উপর হামলা করেন সুহেল চৌধুরী গ্রুপের আটক হওয়া সাজ্জাদ আলী শিপলু ও ইমরান হোসেন টিটু।

প্রতিবাদে জালাল উদ্দিন গ্রুপের ছাত্রদল নেতারা রাসেল আহমদকে নিয়ে সুহেল চৌধুরীর বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল দিয়ে বিক্ষোভ করেন। সঙ্গে সঙ্গে সুহেল চৌধুরী অনুসারী বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা পাল্টা মিছিল করেন। ঠিক ওই সময় বিশ্বনাথ থানা গেটের সামনে দু’পক্ষে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হলে ঘটনাস্থল থেকে পাঁচ বিএনপি নেতাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এসময় বিএনপির অফিসসহ উপজেলা জুড়ে ঝটিকা অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে থানা পুলিশ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মুসা বলেন, বড় ধরনের সংঘর্ষ এড়াতে ওই পাঁচ বিএনপি নেতাকে আটক করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত