রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৪ জুলাই, ২০১৬ ২২:০০

দেশের সকল মসজিদে আজ একই খুৎবা

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম সহ দেশের সবগুলো মসজিদের খুৎবা নির্ধারণ করে দিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। নির্ধারিত এ খুৎবাটি দেশের সব মসজিদে অনুকরণ ও অনুসরণ করতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ‘অশান্তি এবং জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাস সম্পর্কে সতর্কীকরণ’ শিরোনামের খুৎবাটি শুক্রবার (১৫ জুলাই) দেশের সকল মসজিদে অনুকরণ ও অনুসরণের অনুরোধ করা হয়েছে।

ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই অনুরোধ জানানোর পাশাপাশি দুই পৃষ্ঠার খুতবার আরবি ও বাংলা তরজমাও পাঠানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, শুক্রবার বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের জুমার খুৎবা এরসাথে সংযুক্ত করা হলো। সংযুক্ত খুৎবাটি দেশের সকল মসজিদে অনুকরণ ও অনুসরণ করার জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

খুৎবার নির্দেশনায় জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস রোধে সন্তানরা যাতে সন্ত্রাসীদের কবলে না পড়ে সে জন্য অভিভাবকদের করণীয় তুলে ধরা হয়েছে।

খুৎবার বাংলা তরজমায় বলা হয়েছে, “হে মসুলমানগণ! একজন মানুষ সে যাই হোক না কেন- তার জন্য পৃথিবীকে নিরাপদ জীবন ধারণের অধিকার স্বীকৃত। সে মুমিন হোক কিংবা কাফির হোক কিংবা ফাসেক হোক। অন্যায়ভাবে কোনো মানুষকে খুন করা কিংবা তার সম্পদ গ্রাস করা কিংবা তাকে অপমানিত করা হারাম। কুরআন বলেছে, আল্লাহ যার হত্যা নিষিদ্ধ করেছেন যথার্থ কারণ ব্যতিরেকে তাকে হত্যা করো না এবং আরও এরশাদ হচ্ছে যে ব্যক্তি অন্যায়ভাবে কোনো মানুষকে হত্যা করল সে যেন দুনিয়ার সকল মানুষকেই হত্যা করল।”

“মহানবী বলেন, সর্বোচ্চ কবিরা গোনাহ হল মানুষ খুন করা। এখানে মুসলিম অমুসলিম পার্থক্য করা হয়নি।”

ইসলামের নামে বিভ্রান্তিমূলক প্রচার চালিয়ে জঙ্গিবাদীরা হত্যাকাণ্ডে প্ররোচনা চালায় বলে অভিযোগ রয়েছে। তাদের বিভ্রান্তিকর প্রচারে তরুণ-যুবকরা প্ররোচিত হচ্ছে বলে সাম্প্রতিক দুটি ঘটনায় উঠে এসেছে।

খুৎবায় অভিভাবকদের সচেতন করে বলা হয়েছে, “আপনারা আপনাদের সন্তান-সন্ততির বিষয়ে বিশেষভাবে মনোযোগী ও সাবধান থাকুন। তাদেরকে সুন্দর চরিত্রের শিক্ষা দিন। তাদের বিষয়ে সজাগ থাকুন যে আপনার সন্তানকে আপনার চোখ ফাঁকি দিয়ে যেন সন্ত্রাসীরা কেড়ে নিতে না পারে। সন্ত্রাসীরা এই অবুঝ সরল কিশোরদেরকে পরিবারের নিয়ন্ত্রণ থেকে ভাগিয়ে নিয়ে নানা অপকর্মের প্রশিক্ষণ দিয়ে জঙ্গি বানাতে চেষ্টা করে থাকে।”

“সবশেষে আমরা আহ্বান করি আমাদের সন্তানদেরকে, আমাদের যুবকদেরকে সকল সন্ত্রাসী কার্যক্রম থেকে বেঁচে থাকতে, হে আল্লাহ! আমাদের দেশ বাংলাদেশ। এ দেশকে আপনি সন্ত্রাস ও বিপর্যয় থেকে রক্ষা করুন এবং একে শান্তি ও সমৃদ্ধির দেশে পরিণত করুন,” বলা হয়েছে খুৎবায়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত