রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৭ জুলাই, ২০১৬ ১৭:১৪

চুয়াডাঙ্গায় আখড়ায় হামলা চালিয়ে ৩ বাউলকে কুপালো দুর্বৃত্তরা

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার একতারপুর গ্রামে এক বাউল সাধুগুরুর আস্তানায় দুর্বৃত্তদের হামলায় দুই নারীসহ ৩ জন আহত হয়েছেন। এছাড়া একজন নিখোঁজ বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
 
শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।
 
দুর্বৃত্তদের হামলায় আহতরা হলেন- ঝিনাইদহ জেলার ভবানীপুর গ্রামের ফজলুর রহমানের স্ত্রী রশিদা বেগম (৬০), কুষ্টিয়া জেলার পোড়াদা গ্রামের আব্দুর রহিম (৬৫) ও তাঁর স্ত্রী বুলু বেগম (৫০)।
 
তাদেরকে প্রথমে জীবননগর হাসপাতালে এবং পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা সাধু গুরু মুকুল হোসেনের ভক্ত (আশেকান)।
 
এছাড়া আস্তানার সাধু ভক্ত বক্স মণ্ডল নামে এক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন।
 
আস্তানার সাধুগুরু মুকুল হোসেন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এলাকার বিভিন্ন গ্রাম থেকে সাধু ভক্তরা এসে অনুষ্ঠান শেষে ওই আস্তানায় ঘুমিয়ে ছিলেন। রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে ১০/১২ জন দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আস্তানায় ঢুকে আস্তানায় থাকা সাধু ভক্তদের ওপর এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকেন। এ সময় তাদের চিৎকারে গ্রামবাসীরা ছুটে এলে দৃর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।
 
পরে গ্রামবাসী রশিদা বেগম (৬০), আব্দুর রহিম (৬৫) ও তার স্ত্রী বুলু বেগমকে (৫০) উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখান থেকে তাদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।
 
স্থানীয়দের দাবি, দুর্বৃত্তদের হামলার পর থেকে আস্তানার এক সাধুভক্ত কোটচাঁদপুর উপজেলার বলুহর গ্রামের বক্স মণ্ডল (৫০) নামে এক সাধু ভক্ত নিখোঁজ রয়েছেন।
 
হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. আনিছুর রহমান জানান, আহত রশিদার গলায় ও মুখে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে এবং আব্দুর রহিম ও বুলু বেগমকে শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয়েছে।
 
জীবননগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, আমার কাছে এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। তবে ঘটনাটি লোকমুখে শোনার পর বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত