রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৮ জুলাই, ২০১৬ ০১:২৩

ঝিনাইদহে সেবায়েত ও হোমিও চিকিৎসক হত্যায় দুই শিবির নেতার দায় স্বীকার

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার শ্রী শ্রী রাধামদন বিগ্রহ মঠ মন্দিরের সেবায়েত শ্যামানন্দ দাস ও কালীগঞ্জ উপজেলার চাপালী গ্রামের হোমিও চিকিৎসক আব্দুর রাজ্জাক হত্যার দায় স্বীকার করেছে দুই শিবির নেতা।

তারা হলো ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে ও কালীগঞ্জ উপজেলার বাকুলিয়া গ্রামের শিবিরের সাধারণ সম্পাদক সবুজ খান (২১) এবং শৈলকূপা উপজেলার ফুলহরি গ্রামের আমিনুল ইসলামের ছেলে ও ঝিনাইদহ দক্ষিণ অংশের শিবিরের সভাপতি শাহিন আলম (২৩)।

রোববার বিকালে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক বেগম ফাহমিদা জাহাঙ্গীর ও কালীগঞ্জ আমলী আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আলমগীর কবির ১৬৪ ধারায় তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

রোববার সন্ধ্যা ৭টায় ঝিনাইদহ জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন।

তিনি জানান, আটকেরা জবানবন্দিতে বলেছে তারা শিবিরের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে সেবায়েত শ্যামানন্দ দাস ও হোমিও চিকিৎসক আব্দুর রাজ্জাককে হত্যা করেছে। তিনি আরো জানান, পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার সকালে সদরের হরিপুর গ্রাম থেকে সবুজ ও রোববার ভোরে শেখপাড়া বাজার থেকে শাহিন আলমকে আটক করে।

১৫ মার্চ কালীগঞ্জ উপজেলার গান্না রোডে হোমিও চিকিৎসক আব্দুর রাজ্জাক ও ১ জুলাই সদর উপজেলার মধুপুর শ্রী শ্রী রাধামদন বিগ্রহ মঠের সামনে সেবায়েত শ্যামানন্দ দাসকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত