বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৪ মে, ২০১৯ ১১:৫১

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশ জানায়, নিহত দুজন রোহিঙ্গা। তারা মানব পাচারকারী।

সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে শামলাপুর এলাকার টেকনাফ-কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দুজন হলেন- আবদুস সালাম (৫২) ও আজিম উল্লাহ (২২)।

পুলিশ বলছে, আবদুস সালাম উখিয়ার পালংখালীর জামতলীর ১৫ নম্বর রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের বাসিন্দা। এর আগে তিনি মালয়েশিয়া থাকতেন। আর আজিম উল্লাহ টেকনাফের বাহারছড়ার শামলাপুর ২৫ নম্বর রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের বাসিন্দা ।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস জানান, গতকাল রাতে কয়েকজন রোহিঙ্গা নাগরিককে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাঠানোর কথা বলে জড়ো করার খবর পায় পুলিশ। সেই সূত্র ধরে পুলিশের বিশেষ দল উপজেলার বাহারছড়ার শামলাপুর এলাকায় পৌঁছায়। সেখানে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় মানবপাচারকারী দলের সদস্যরা। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে কয়েকজন পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটু দূরে ১১ জন নারীকে উদ্ধার করা হয়। পরে ওই এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুজনকে পাওয়া যায়। উদ্ধার হওয়া নারীরা গুলিবিদ্ধ দুজনকে দালাল বলে শনাক্ত করেন। গুলিবিদ্ধ দুই দালালকে উদ্ধার করে দ্রুত স্থানীয় রোহিঙ্গা শিবিরের একটি ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

দুজনের লাশ উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

ওসি আরও বলেন, নিহত দুজন সম্পর্কে মামা-ভাগনে। তারা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবির থেকে রোহিঙ্গাদের কৌশলে মালয়েশিয়া পাঠানোর কথা বলে টাকাপয়সা আত্মসাৎ করছিলেন।

ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় দুটি অস্ত্র (এলজি), ৫টি তাজা গুলি ও ১১ জন নারীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) জাহিরুল হকসহ চারজন আহত হয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত