রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ ইং

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক

২৪ মার্চ, ২০১৯ ০১:০০

যেভাবে হত্যা করা হয় সিকৃবি শিক্ষার্থী ওয়াসিমকে

শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শেরপুরে বাস চাপায় নিহত হয়েছেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ওয়াসিম আদনান।

বাসটির চালকের সহযোগি চলন্ত বাস থেকে ওয়াসিমকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে হত্যা করে বলে অভিযোগ করেছেন তাঁর সহপাঠীরা। পুলিশও জানিয়েছে এমনটি।

কিভাবে হত্যা করা হয় ওয়াসিমকে ফেসবুকে এ ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন সিকৃবির সাবেক শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়টির জনসংযোগ দপ্তরের সহকারী পরিচালক ফয়সাল খলিলুর রহমান

ফেসবুকে ফয়সাল লিখেন-

ওয়াসিম হত্যার ঘটনাটা শুনুন। প্রথমেই বাসের নম্বরটা বলে দিই : ঢাকা মেট্রো ১৪১২৮০

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষার্থী হবিগঞ্জের নবীনগরের দেবপাড়ায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলো। আজ শনিবার ময়মনসিংহ-সরিষাবাড়ী- সিলেট রুটে চলাচলরত উদার পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসে করে মৌলভীবাজারের শেরপুরে ফিরছিলো।

নবীনগরের নাইমা ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে ওই বাসে ওঠে তারা। বাসে ওঠার সময়ই তাঁরা চালক ও হেলপারকে ভাড়া কম আছে বলে জানিয়েছিলো। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী তাঁরা ভাড়া বাবদ ৬০০ টাকা পরিশোধও করেছিলো। কিন্তু শেরপুরে নামার সময় হেলপার ও চালক তাঁদের কটূক্তি করেন। এ সময় ওয়াসিম ও রাকিব হোসেন তাদের কথার প্রতিবাদ করে। এ দুজন ছাড়া বাকি নয়জন তখন বাস থেকে নেমে স্ট্যান্ডে অবস্থান করছিলেন।

তর্কাতর্কির একপর্যায়ে হেলপার ওয়াসিম ও রাকিবকে ধাক্কা দিয়ে বাসের দরজা লাগিয়ে দেয় আর খুনি চালকটা বাস চালানো শুরু করে। রাকিব সড়কে ছিটকে পড়লেও ওয়াসিমের পা দরজার সঙ্গে আটকে যায়। একপর্যায়ে আমাদের ওয়াসিম বাসের পেছনের চাকায় পিষ্ট হয়।

প্রকাশ্য দিবালোকে পরিষ্কার হত্যাকান্ড।

এ ঘটনার ব্যাপারে মৌলভীবাজার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহাম্মদ সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এটি একটি হত্যাকান্ড। চালকের সহযোগি বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ওই শিক্ষার্থীকে ফেলে দিয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে তার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

ইতোমধ্যে এ ঘটনায় উদার পরিবহনের সেই বাস ও বাস চালককে আটক করেছে পুলিশ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত